advertisement
আপনি দেখছেন

নিষেধাজ্ঞা সত্ত্বেও কোরিয়ার ক্ষেপণাস্ত্র উৎক্ষেপনের পর দেশটির সীমানার পাশেই ক্ষেপণাস্ত্র বিধ্বংসী ব্যবস্থা ‘থাড’ মোতায়েন করার পরিককল্পনা করছে আমেরিকা। ‌সোমবার 'থাড' স্থাপনের বিষয়টি নিশ্চিত করেছে মার্কিন প্রতিরক্ষা সদরদপ্তর পেন্টাগন।

north koria missle

তবে যদিও বলা হচ্ছে 'থাড' মোতায়েনের আগে দক্ষিণ কোরিয়ার সঙ্গে আলোচনা করবে বলে জানিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। এখন পর্যন্ত 'থাড' স্থাপনের পরিকল্পনা থাকলেও ঠিক কবে নাগাদ এর কাজ শুরু বা শেষ হবে সে বিষয়ে কিছু জানায়নি পেন্টাগণ। প্রতিরক্ষা বিষয়ক মুখপাত্র পিটার মি. কুক জানিয়েছেন, যত তাড়াতাড়ি সম্ভব 'থাড' স্থাপন করা হবে।

বিজ্ঞানীরা বলছেন, 'থাড' হচ্ছে ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র ভূপাতিত করার জন্য অত্যাধুনিক ব্যবস্থা। 'থাড' দিয়ে ক্ষেপণাস্ত্র ছোড়ার প্রাথমিক পর্যায়ে সেটিকে ধ্বংস করা যাবে।
 
এদিকে পেন্টাগন দাবি করেছে, পিয়ংইয়ং দূর পাল্লার রকেট উৎক্ষেপণের উত্তর কোরিয়ার কাছেই থাড মোতায়েন করা হবে। 'থাড' স্থাপনের পর উত্তর কোরিয়ার অস্ত্র সক্ষমতা মোকাবেলা করা খুব সহজ বলে দাবি করছে পেন্টাগন।

মার্কিন পরিকল্পনার বিরোধিতা করেছে চীন ও রাশিয়া। দেশ দুটির মতে যুক্তরাষ্ট্রের এ ধরনের পদেক্ষপে কোরিয়ার উপদ্বীপে অস্থিতিশীল পরিবেশ সৃষ্টি হতে পারে।

 

আপনি আরো পড়তে পারেন

বন্দীদের নিশ্চিহ্ণ করতে চায় সিরিয়া : জাতিসংঘ

এশিয়া-আফ্রিকায় জিকা ছড়ানোর আশঙ্কা

বিশ্ববিদ্যালয়ের চাকরি ছেড়ে দিলেন হিজাবধারী অধ্যাপক

sheikh mujib 2020