advertisement
আপনি পড়ছেন

২৬/১১-র মুম্বাই হামলায় অভিযুক্ত মার্কিন নাগরিক ডেভিড হেডলির মন্তব্যে ভারত-পাকিস্তান সম্পর্কে নতুন করে চির ধরতে পারে বলে ধারণা করছেন সংশ্লিষ্ট বিশেষজ্ঞরা। ডেভিড হেডলি এমন এক সময় এই মন্তব্য করলেন যখন মাত্র কিছুদিন আগেই ভারতের পাঠানকোট বিমান ঘাঁটির ওপর জঙ্গি হামলা হয়েছে।

india pakistan flag

মুম্বাই হামলার অন্যতম অভিযুক্ত আসামি ডেভিড হেডলি গত সোমবার ও মঙ্গলবার ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে আদালতে তার জবানবন্দি দেন। সেই জবানবন্দিতে উঠে এসেছে নানা বিস্ফোরক তথ্য।

হেডলি তাঁর জবানবন্দিতে জানান, লস্কর-ই-তৈয়বা, হিযবুত তাহরীর ও জইশ-ই-মোহাম্মদ এবং আরও নানান জঙ্গি গোষ্ঠী ভারতে নাশকতামূলক কার্যকলাপ চালাতে প্রতিদিন পরিকল্পনা করছে। আর এই জঙ্গিরা পাকিস্তানি গোয়েন্দা সংস্থা আইএসআই থেকে সব ধরনের সাহায্য পেয়ে থাকে।

হেডলি জানান, তিনি নিজে ওই জঙ্গি গোষ্ঠীতে যোগ দেবার পর ট্রেনিং নিয়ে মুম্বাই আসেন। এ সময় তিনি ৫-৬ বার মুম্বাই ঘুরে যান এবং হামলার স্থান ঘুরে ঘুরে বিভিন্ন তথ্য পাক জঙ্গিদের কাছে পাঠান। জঙ্গীদের টার্গেট ছিলো, মুম্বাইয়ের তাজ হোটেল, সিদ্ধি বিনায়ক মন্দির, মুম্বাই পুলিশের সদরদপ্তর আর ভারতের নৌ এবং বায়ুসেনার ঘাঁটি।

উল্লেখ্য, মুম্বাই হামলায় জড়িত থাকার অভিযোগে হেডলিকে মার্কিন প্রশাসন ৩৫ বছরের কারাদণ্ড দিয়েছে।

এদিকে সম্প্রতি পাঠানকোট হামলায় পাকিস্তানি জঙ্গিদের জড়িত থাকার যথেষ্ট প্রমাণাদি থাকার পরও পাকিস্তানি কর্তৃপক্ষ অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে কোনো ব্যবস্থা না নেয়ায় দুই দেশের সম্পর্কে একটি গুমোট অবস্থা বিরাজ করছে।

এবার ডেভিড হেডলির জবানবন্দির পর নতুন করে পাক-ভারত সম্পর্ক খারাপের দিকে মোড় নিতে পারে বলে ধারনা করছেন বিশেষজ্ঞগণ।

 

আপনি আরও পড়তে পারেন

জনগণের সুখের জন্য 'সুখ-শান্তি মন্ত্রণালয়'!

গুলতি মেরে বিক্ষোভ থামাবে পুলিশ

পারমানবিক বোমার কাঁচামাল উৎপাদন করছে উত্তর কোরিয়া!