advertisement
আপনি দেখছেন

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের নৌবাহিনী প্রধান রিচার্ড স্পেন্সারকে বহিষ্কার করা হয়েছে। দেশটির প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের সঙ্গে দ্বিমত করায় প্রতিরক্ষামন্ত্রী মার্ক এস্পার এ বহিষ্কারের নির্দেশ দেন। তবে কখন এ নির্দেশ দেয়া হয়েছে, সে বিষয়ে নিশ্চিত হওয়া যায়নি।

donald trump richard spencer ডোনাল্ড ট্রাম্প ও রিচার্ড স্পেন্সার

এ বিষয়ে প্রতিরক্ষামন্ত্রী এস্পার বলেন, স্পেন্সার হোয়াইট হাউসে ব্যক্তিগতভাবে যা বলেন প্রকাশ্যে তার বিপরীত অবস্থান নেন। এজন্য তিনি আস্থা হারিয়েছেন।

বিবিসির এক প্রতিবেদনে বলা হয়, ২০১৭ সালে যুদ্ধবন্দী এক আইএস যোদ্ধাকে ছুরিকাঘাতে হত্যা করেন নেভি সিল কর্মকর্তা অ্যাডওয়ার্ড গালেগার। এছাড়া ইরাকে বেসামরিক নাগরিকদের ওপর নির্বিচার গুলি করে হত্যার দায়েও অভিযুক্ত হন তিনি। কিন্তু গালেগারকে এসব অভিযোগ থেকে অব্যাহতি দিয়ে কেবল বন্দী যোদ্ধার লাশের সঙ্গে ছবি তোলার মতো দুর্বল ধারায় দোষী সাব্যস্ত করা হয়।

এ বিচারের পর গালেগারকে নৌবাহিনী প্রধান স্পেন্সার পদাবনতি দিলেও তাকে পুনর্বহাল করেন ট্রাম্প। এরপর দিন সাতেক আগে গালেগারকে ডিসিপ্লিনারি রিভিউর মুখোমুখি হতে হবে বলে চিঠি দিয়ে জানিয়ে দেয় নৌবাহিনী। এতে নৌবাহিনী থেকে বহিষ্কারের ঝুঁকিতে পড়েন তিনি।

নৌবাহিনীর এ সিদ্ধান্তের বিরোধিতা করে গত বৃহস্পতিবার এক টুইটে ট্রাম্প বলেন, নৌবাহিনী একজন যোদ্ধার সদস্যপদ কেড়ে নিতে পারে না। ধারণা করা হচ্ছে, এ নিয়ে ট্রাম্পের সঙ্গে দ্বিমতের কারণেই স্পেন্সারকে বহিষ্কার করা হয়।

প্রসঙ্গত, যুদ্ধাপরাধে দোষী সাব্যস্ত মার্কিন সেনাদের একের পর এক ক্ষমার ঘটনায় দেশটির সামরিক বাহিনীর একাংশ প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের কঠোর সমালোচনা করছে। তারা বলছেন, এর ফলে যুদ্ধকালে মার্কিন বাহিনীর অপরাধপ্রবণতা আরও বাড়াবে।