advertisement
আপনি দেখছেন

নিরাপত্তা সুরক্ষা নীতি লঙ্ঘনের দায়ে মার্কিন অ্যাপস ভিত্তিক পরিবহন সেবা প্রদানকারী প্রতিষ্ঠান উবারের লাইসেন্স বাতিল করেছে লন্ডন কর্তৃপক্ষ। পাশাপাশি স্থানীয় সময় সোমবার রাত ১২টার পর থেকে যুক্তরাজ্যের রাজধানী লন্ডনে প্রতিষ্ঠানটির সকল কার্যক্রম নিষিদ্ধ ঘোষণা করেছে ট্রান্সপোর্ট ফর লন্ডন (টিএফএল)। খবর ব্রিটিশ গণমাধ্যম।

uber serviceলন্ডনে নিষিদ্ধ উবার

বিষয়টি নিশ্চিত করে টিএফএল কর্তৃপক্ষ জানায়, রাজধানীতে পরিবহন সেবা প্রদানের জন্য উবারকে কোন নতুন লাইসেন্স দেয়া হচ্ছে না। কারণ প্রতিষ্ঠানটি পরিবহন সেবা সুরক্ষার এমন কিছু নীতি লঙ্ঘন করেছে, যা যাত্রীদের নিরাপত্তার বিষয়টিকে হুমকির মুখে ফেলেছে।

বর্তমান সময়ে উবার তাদের কার্যক্রম পরিচালনার জন্য উপযুক্ত নয় উল্লেখ করে কর্তৃপক্ষ আরো জানায়, পরিবহন সেবা প্রদানকারী প্রতিষ্ঠানটির নিরাপত্তা সংক্রান্ত কর্মকাণ্ড তাদের মধ্যে উদ্বেগ তৈরি করেছে। প্রতিষ্ঠানটি ভবিষ্যতে এমন আর করবে না এমন নিশ্চয়তা না থাকায় তারা উবারকে নতুন লাইসেন্স না দেয়ার সিদ্ধান্তে উপনীত হয়েছেন।

আন্তর্জাতিক সংবাদ মাধ্যম বিবিসি জানায়, ২০১৭ সালে প্রথম উবারের লাইসেন্স বাতিলের সিদ্ধান্ত গ্রহণ করে লন্ডন কর্তৃপক্ষ। তখন প্রতিষ্ঠানটি তাদের পরিবহন সেবার মান ও যাত্রীদের নিরাপত্তা বিষয়টি বাড়াবে বলে কর্তৃপক্ষের কাছে অনুরোধ জানায়। এর প্রেক্ষিতে লন্ডনে তাদের কার্যক্রম পুনরায় পরিচালনার জন্য লাইসেন্সের মেয়াদ এক বছর তিন মাস বাড়িয়ে দেয়া হয়। কিন্তু এই সময়ের মধ্যে প্রতিষ্ঠানটি তাদের সেবার মান বৃদ্ধির বিষয়ে উপযুক্ত প্রমাণ দিতে ব্যর্থ হওয়ায় এখন আর তাদেরকে নতুন লাইসেন্স দেয়া হচ্ছে না।

এক বিবৃতিতে লন্ডনের মেয়র সাদিক খান বলেন, কর্তৃপক্ষের এমন সিদ্ধান্তে উবার ব্যবহারকারী অনেকের দ্বিমত থাকতে পারে। কিন্তু যাত্রীদের নিরাপত্তার বিষয়টিই সবচেয়ে বেশি গুরুত্বপূর্ণ। তাই যাত্রীদের নিরাপত্তার কথা চিন্তা করেই এমন সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়েছে।

এদিকে উবার কর্তৃপক্ষ জানায়, লন্ডন কর্তৃপক্ষের এমন সিদ্ধান্ত অপ্রত্যাশিত। উবার যাত্রীদের সুরক্ষা বিষয়ক সকল নিয়ম মেনেই কার্যক্রম পরিচালনা করে থাকে। কিন্তু তারপরও টিএফএল এমন পদক্ষেপ গ্রহণ করছে। তাই এ সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে আপিল করা হবে।