advertisement
আপনি দেখছেন

চীনের আধা-স্বায়ত্তশাসিত অঞ্চল হংকংয়ের ডিস্ট্রিক্ট কাউন্সিল নির্বাচনে চীনপন্থী আইনপ্রণেতাদের হারিয়ে গণতন্ত্রপন্থীরা একচেটিয়া জয় পাওয়ায় সেখানের জ্যেষ্ঠ লিয়াজোঁ অফিসার পদে পরিবর্তন আনার জন্যে বিবেচনা করছে চীন। হংকংয়ের সামগ্রিক পরিস্থিতি সুষ্ঠুভাবে দেখভাল এবং ‘সঙ্কট মোকাবেলার’ জন্য দেশটির সীমান্তবর্তী শেনজেন শহরে ইতোমধ্যেই একটি কমান্ড সেন্টারও স্থাপন করেছে চীন। 

china hongkong liasonহংকংয়ের লিয়াজোঁ অফিসে পরিবর্তন আনছে চীন

গত ৫ মাস ধরে দেশটিতে চলমান অস্থিরতা, বিক্ষোভ ও সংঘাতের ফলে এ নির্বাচনকে ঘিরে অনিশ্চয়তা সৃষ্টি হয়েছিল। তবে সব আশঙ্কা দূর করে শান্তিপূর্ণভাবেই নির্বাচনে গণতন্ত্রপন্থীরা বিজয়ী হয়েছে।

হংকংকে স্থাপিত চীন সরকারের লিয়াজোঁ অফিস সাধারণত চীন এবং হংকংয়ের মধ্যে যোগাযোগমাধ্যম হিসেবে কাজ করে। হংকংয়ের কেন্দ্রে বিশাল এক ভবনে কঠোর নিরাপত্তা ব্যবস্থার মধ্যে চলছে অফিসটি। চীনের মূল ভূখণ্ডে হংকংয়ের সীমান্তবর্তী একটি বাড়ির মধ্যে সাদামাটা এক অফিস থেকে হংকং বিষয়ে কাজ করেন চীনা কর্মকর্তারা।

আনুষ্ঠানিক কূটনীতি ছাড়া হংকংয়ের বিষয়ে অন্যান্য সকল পদক্ষেপ এ অফিস থেকে নিয়ন্ত্রণ করা হয়। সংশ্লিষ্ট দুজন কর্মকর্তার তথ্যের ওপর ভিত্তি করে রয়টার্স জানায়, হংকংয়ের জ্যেষ্ঠ লিয়াজোঁ অফিসের ডিরেক্টর ওয়াং ঝিমিনের পদে অন্য কাউকে ভাবছে চীন।

রয়টার্সকে এক চীনা কর্মকর্তা বলেন, ধনী আর উচ্চ পর্যায়ের লোকদের সাথে স্বার্থ দেখতে দেখতে লিয়াজোঁ অফিস সাধারণ জনগণ থেকে সম্পূর্ণভাবে বিচ্ছিন্ন হয়ে গেছে। এ অবস্থার পরিবর্তন দরকার। গত রোববার নির্বাচনে বেইজিংপন্থী দলগুলির বিরাট পরাজয়ে পরে বাড়তি চাপের মুখে পড়তে পারে লিয়াজোঁ অফিস।

চীনের হংকং এবং ম্যাকাও বিষয়ক কার্যালয় এবং হংকংয়ের লিয়াজোঁ অফিস এ ব্যাপারে এখনো কোনো মন্তব্য করেনি। তাছাড়া হংকংয়ের প্রধান নির্বাহী ক্যারি লামও এ ব্যাপারে কোনো মন্তব্য করেননি।