advertisement
আপনি দেখছেন

শ্রেণিকক্ষে বসে প্রেমপত্র লেখা এবং চুরির অভিযোগে দু্ই ছাত্রকে বিদ্যালয়ের বেঞ্চের সঙ্গে বেঁধে নির্যাতনের অভিযোগ উঠেছে স্কুল কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে। বৃহস্পতিবার এই ঘটনাটি ঘটেছে ভারতের অন্ধ্রপ্রদেশের অনন্তপুর জেলার কাদিরি শহরের মোসানপেট আপার প্রাইমারি স্কুলে। খবর ভারতীয় গণমাধ্যম আনন্দবাজার পত্রিকা।

student tourtre in classপ্রেমপত্র লেখায় ছাত্রকে হাত-পা বেঁধে শাস্তি

প্রতিবেদনে বলা হয়, নির্যাতনের শিকার খুদে শিক্ষার্থীদের একজন ওই বিদ্যালয়ের তৃতীয় শ্রেণিতে এবং অন্যজন পঞ্চম শ্রেণিতে পড়তো। তাদের বিরুদ্ধে অভিযোগ, তারা একজন শ্রেণিকক্ষে বসে প্রেমপত্র লিখেছে, আর অন্যজন সহপাঠীদের জিনিসপত্র চুরি করেছে। এ জন্য তাদের হাত-পা বিদ্যালয়ের বেঞ্চের সঙ্গে বেঁধে শাস্তি দেয়া হয়।

এ বিষয়ে বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষিকা বলেন, এতো ছোট বয়সে ক্লাসে বসে প্রেমপত্র লেখা এবং চুরি করা দুটোই সমান অপরাধ। তাই তাদের বেঞ্চের সঙ্গে বেঁধে শাস্তি দেয়া হয়েছে। তবে তিনি ওই শিক্ষার্থীদের বেঁধে রাখেননি। ওই ছাত্রদের মায়েরাই তাদের বেঁধে শাস্তি দিয়েছে।

তবে বিদ্যালয়ের শ্রেণিকক্ষের মধ্যে কীভাবে অভিভাবকরা খুদে শিক্ষার্থীদের বেঁধে রাখলেন, এ বিষয়ে কোন সদুত্তর দিতে পারেননি ওই শিক্ষিকা।

এদিকে এ ঘটনার কয়েকটি ছবি সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছড়িয়ে পড়লে বিভিন্ন সমাজকর্মীরা স্কুল কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নেয়ার দাবি জানান। এছাড়া এ ঘনার তদন্তেরও নির্দেশ দেন প্রদেশটির শিশু অধিকার রক্ষা কমিশন।

কমিশনের চেয়ারম্যান জি হৈমবতী বলেন, তার সঙ্গে অনন্তপুর জেলা প্রশাসক ও কাদিরি পুর কমিশনারের কথা হয়েছে। এই ঘটনাটি তদন্ত করে একটি প্রতিবেদন জমা দেয়ারও নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

sheikh mujib 2020