advertisement
আপনি দেখছেন

সম্প্রতি ভারতের উত্তর কলকাতার সংস্কৃতি বিশ্ববিদ্যালয়ে খুঁজে পাওয়া যায় শত বছর পুরাতন দুটি সিন্দুক। বিশ্ববিদ্যালয়ের সংগ্রহশালার একটি কক্ষের ভেতর গচ্ছিত ছিল এই সিন্দুক দুটি। শুক্রবার খোলা হয় সেগুলোরই একটি। খবর ভারতীয় গণমাধ্যম।

old arkসংস্কৃতি বিশ্ববিদ্যালয়ের সংগ্রহশালায় খুঁজে পাওয়া শত বছরের পুরাতন সিন্দুক

জানা যায়, বিশ্ববিদ্যালয়ের নতুন উপাচার্য দায়িত্ব গ্রহণের পর বিভিন্ন নথি খুঁটিয়ে দেখছিলেন তিনি। সে সময় তিনি একটি নথিতে বিশ্ববিদ্যালয়ের সংগ্রহশালার কথা দেখতে পান। যার জন্য জায়গা বরাদ্দ দেয়া হয়েছিল। এরপর সংগ্রহশালার সেই জায়গাটি দেখতে গিয়ে একটি কক্ষে গচ্ছিত সিন্দুক দুটি নজরে আসে তার।

তবে ভেতরে ও বাহিরে মরিচা পড়া পুরাতন সিন্দুকগুলো কোনভাবেই খোলা সম্ভব হয়নি। পরে সেগুলো উপাচার্যের কক্ষে নিয়ে আসা হয়। এরপর শুক্রবার বাহিরের লোক দিয়ে প্রায় চার ঘণ্টার চেষ্টায় খোলা হয় একটি সিন্দুক। আরেকটি খোলার চেষ্টা চলছে।

old ark 2সিন্দুকের ভেতর পাওয়া বিভিন্ন নথি ও মেডেল

ভারতীয় গণমাধ্যমে বলা হয়, চারটি তালা ভেঙ্গে একটি সিন্দুক খোল হয়ছে। যার মধ্যে ঈশ্বরচন্দ্র বিদ্যাসাগরের ব্যবস্থা করা বিধবা ভাতার নথিসহ ১৯১৯ সালের গঙ্গামণি দেবী সিলভার মেডেল, ড. এন মুখার্জী মেডেল, সংস্কৃত কলেজের পুরাতন কাগজপত্র, ১৯৮২ সালের চেক বই, বিভিন্ন সময়কার তিনটি মেডেল, ৭টি খাম ও ১৯৫৬ সালের মুক্তকেশী দেবী ফাউন্ডেশনের প্রয়োজনীয় কাগজপত্র পাওয়া গেছে।

সংস্কৃত বিশ্ববিদ্যালয়ের বাংলা বিভাগের প্রধান মণিশঙ্কর মণ্ডল গণমাধ্যমকে বলেন, বিশ্ববিদ্যালয়ের সংগ্রহশালা থেকে দুটি সিন্দুক পাওয়া গেছে। যার একটি খুলে বিদ্যাসাগরের সময়কার কাগজপত্রসহ বেশ কয়েকটি নথি পাওয়া যায়।

তিনি আরো বলেন, ১৮২৪ সালে লর্ড আমহার্স্টের আমলে এই বিশ্ববিদ্যালয়টি প্রতিষ্ঠা করা হয়েছি। ঈশ্বরচন্দ্র বিদ্যাসাগরও এখানকার অধ্যক্ষ ছিলেন।

sheikh mujib 2020