advertisement
আপনি দেখছেন

পলাতক আসামীদের ধরতে বিভিন্ন ধরনের পন্থা অবলম্বন করে থাকেন আইন শৃঙ্খলারক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যরা। কখনো গোপন সূত্রের ভিত্তিতে অভিযান চালিয়ে, কখনোবা ফাঁদ পেতে ধরা হয় আসামীদের। তবে এবার খুন, জখম, ডাকাতিসহ একাধিক মামলার এক দাগি আসামীকে বিয়ের পাত্রী সেজে গ্রেপ্তার করেছেন এক নারী পুলিশ কর্মকর্তা।

bride and groom handপ্রতীকী ছবি

ভারতীয় সংবাদমাধ্যম এনডিটিভি জানায়, বৃহস্পতিবার দেশটির মধ্যপ্রদেশের ছত্তারপুরের বিজোরি এলাকা থেকে বালকৃষ্ণ চৌব নামের এক কুখ্যাত আসামীকে গ্রেপ্তার করা হয়। ছত্তারপুরের গারোল্লি থানার ভারপ্রাপ্ত নারী অফিসার মাধবী অগ্নিহোত্রী বিয়ের পাত্রী সেজে তাকে গ্রেপ্তার করেন।

প্রতিবেদনে বলা হয়, বালকৃষ্ণের নামে স্থানীয় থানায় খুন, জখম ও ডাকাতিসহ একাধিক মামলা রয়েছে। তাকে দেখামাত্রই গ্রেপ্তারের নির্দেশও রয়েছে। কিন্তু কিছুতেই তাকে হাতকড়া পরানো যাচ্ছিল না। প্রত্যেকবারই অপরাধ করে পুলিশের চোখে ধুলো দিয়ে পালিয়ে যান ওই আসামী।

শেষবার বালকৃষ্ণকে গ্রেপ্তারের দায়িত্ব পান ছত্তারপুরের গারোল্লি থানার নারী অফিসার মাধবী। তারপর তাকে গ্রেপ্তারের জন্য একটি ফাঁদ পাতেন ওই নারী পুলিশ কর্মকর্তা। আসামীকে ফাঁদে ফেলতে নিজের কিছু পুরোনো ছবি পাঠান বালকৃষ্ণের গোপন ডেরায়। ছবির সঙ্গে বার্তা পাঠানো হয়, তার বিয়ের জন্য পাত্রী দেখা হচ্ছে। বিয়ের কথা বলতে একটি নির্দিষ্ট স্থানে দেখা করারও অনুরোধ জানানো হয়।

ব্যাস, এতেই কাজ হয়ে যায়। বৃহস্পতিবার পাত্রীর সঙ্গে দেখা করতে বিজোরি এলাকায় আসেন বালকৃষ্ণ। আর তখনই তিনজন কনস্টেবলের সাহায্যে তাকে গ্রেপ্তার করতে সক্ষম হন মাধবী। পরদিন শুক্রবার তাকে আদালতে তোলা হলে বিচারক বালকৃষ্ণকে জেল-হাজতে পাঠানোর নির্দেশ দেন।