advertisement
আপনি দেখছেন

বুধবার ভারতের সংসদে দাঁড়িয়ে দেশটির অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারমন বলেন ‘আমি পেঁয়াজ, রসুন খাই না বললেই চলে। আমি যে পরিবার থেকে এসেছি, সেখানে পেঁয়াজের চল নেই।’

nirmala sitharaman

সম্প্রতি ভারতের মহারাষ্ট্রসহ কয়েকটি প্রদেশে বন্যার কারণে দেশটিতে পেঁয়াজের মূল্য অতীতের সকল রেকর্ড অতিক্রম করেছে। নরেন্দ্র মোদির সরকার পেঁয়াজের ঊর্ধ্বগতির লাঘাম টেনে ধরার চেষ্টা করলেও এখনও পর্যন্ত তা নিয়ন্ত্রণে ব্যর্থ। এ প্রসঙ্গেই পেঁয়াজ সম্পর্কে এমন মন্তব্য করেন নির্মলা।

অর্থমন্ত্রী আরো বলেন, ‘পেঁয়াজ সংরক্ষণের জন্য কাঠামোগত কিছু পরিবর্তন আনা আবশ্যক, আর তার জন্য সরকার উপযুক্ত পদক্ষেপ নিতে প্রস্তুত। পেঁয়াজ চাষের ব্যাপারে জমির পরিমাণ কম হওয়াতে উৎপাদনের পরিমানও কমেছে। কিন্তু কীভাবে পেঁয়াজের উৎপাদন বৃদ্ধি করা যায় সরকার সে বিষয়ে যথেষ্ট সজাগ। এছাড়া মিশর ও তুর্কী থেকেও পেঁয়াজ আমদানির কথা ভাবছে কেন্দ্র সরকার।’

এ বক্তব্যর পর পরই নির্মলা সীতারমন বিরোধীদলের তীব্র সমালোচনার মুখে পড়েন। আগুনে ঘি ঢালেন সরকার দলীয় মন্ত্রী অশ্বিনী চৌবে। তিনি নির্মলার বক্তব্যের জের টেনে বলেন ‘আমি নিরামিষাশী। জীবনে কখনো পেঁয়াজই খাইনি। আমার মত মানুষের পক্ষে পেঁয়াজ সম্পর্কে কিছু বলা কীভাবে সম্ভব?’

অন্যদিকে সাবেক অর্থমন্ত্রী ও কংগ্রেস নেতা পি চিদম্বরম বলেন ‘অর্থমন্ত্রী পেঁয়াজ খান না, তো কি অ্যাভোকাডো ফল খান? এ রকম সংকটময় পরিস্থিতিতে অর্থমন্ত্রী ও সাবেক অর্থমন্ত্রীর এ ধরনের বক্তব্য শুনে উপস্থিত সাংসদরা হেসে ওঠেন।