advertisement
আপনি দেখছেন

চীনকে ঋণ দেওয়া বন্ধ করুক বিশ্বব্যাংক, কোনও রাখঢাক না করে এমনই মন্তব্য করলেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। আরও একবার চীন নিয়ে তার প্রশাসনের অবস্থান স্পষ্ট করলেন তিনি।

trump us president 1

বৃহস্পতিবার বিশ্বব্যাংক সিদ্ধান্ত নিয়েছে যে, চীনকে প্রতি বছর এক থেকে দেড় বিলিয়ন মার্কিন ডলার ঋণ দেওয়া হবে, তা চলতে থাকবে ২০২৫ সাল পর্যন্ত। তার পরই টুইট করে ট্রাম্প বলেন, ‘বিশ্বব্যাংক কেন চীনকে ঋণ দিচ্ছে? এটা কি আদৌ বাস্তবসম্মত? চীনের প্রচুর অর্থ রয়েছে, যদি না থাকে তারা ছাপিয়ে নেবে। বন্ধ করুন।’

ট্রাম্প প্রশাসন বার বারই চীন নিয়ে অবস্থান স্পষ্ট করে এসেছে। এই তালিকায় রয়েছেন ডেভিড মালপাসও, বিশ্বব্যাংকের প্রধান হিসেবে নির্বাচিত হওয়ার আগে তিনি ছিলেন মার্কিন অর্থ বিভাগে।

এদিকে, ট্রাম্পের কথার প্রতিধ্বনি শোনা গেছে তার অর্থমন্ত্রী স্টিভেন এমনুচিনের কথাতেও। মার্কিন সংসদের নিম্নকক্ষ হাউস অফ রিপ্রেজেন্টেটিভের একটি কমিটিতে তিনি জানান, চীনে বহু বছর ধরে চলা প্রকল্পের জন্য দীর্ঘমেয়াদি ঋণ দেওয়ার ক্ষেত্রে মার্কিন প্রশাসনের আপত্তি রয়েছে।

এ নিয়ে শুক্রবারই আলোচনা হয়, সেই আলোচনায় চীনকে ঋণ প্রদান কমানোর কথা বলা হয়েছে।

উল্লেখ্য, ২০১৯ সালের জুন মাসে শেষ হওয়া অর্থবর্ষে চীনকে ১.৩ বিলিয়ন মার্কিন ডলার ঋণ দিয়েছে বিশ্বব্যাংক। ২০১৭ অর্থবর্ষে দেশটিকে ২.৪ বিলিয়ন ডলার ঋণ দেওয়া হয়েছিল।

তবে বিশ্বব্যাংকের চীন সংক্রান্ত নির্দেশক মার্টিন রাইজার বলেন, এই পরিকল্পনায় ‘চীনের সঙ্গে আমাদের সম্পর্কই প্রতিফলিত হয়েছে, আমরা ক্রমেই আরও বেশি সিলেক্টিভ হচ্ছি।’

sheikh mujib 2020