advertisement
আপনি দেখছেন

ভিসার মেয়াদ শেষ হওয়ার পর ভারতে অবস্থান করলে হিন্দু ধর্মাবলম্বীদের চেয়ে দুইশো গুণ বেশি জরিমানা গুনতে হবে মুসলিমদের। প্রায় এক বছর আগে ধর্মীয় বৈষম্যমূলক এ ভিসা বিধিমালা কার্যকর করে দেশটি।

indian visaভিসার মেয়াদ শেষে ভারতে অবস্থানে ২০০ গুন জরিমান গুনতে হবে মুসলিমদের

ভারতীয় গণমাধ্যম দ্য হিন্দুর এক প্রতিবেদনে বলা হয়, দুই সপ্তাহ আগে বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ভারতের কলকাতা সফরে গেলে নতুন ভিসা নীতিমালা সংক্রান্ত এই বৈষম্যটি প্রকাশ পায়। ওই সময় দুই দেশের মধ্যকার টেস্ট সিরিজে অংশ নেয়া বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের ব্যাটসম্যান সাইফ হাসানের ভিসার মেয়াদ শেষ হয়ে গেলে তাকে এই ধর্মীয় বৈষম্যমূলক জরিমানা গুনতে হয়।

পরে সাইফ বিষয়টি কলকাতায় অবস্থিত বাংলাদেশের ডেপুটি হাই কমিশনে অবহিত করলে সেখান থেকে ভারতের ফরেইনার রিজওনাল রেজিস্ট্রেশন অফিসে (এফআরআরও) যোগযোগ করা হয়।

তখন এফআরআরও সূত্রে জানা যায়, ভিসার নতুন নীতিমালা অনুযায়ী বাংলাদেশ, পাকিস্তান ও আফগানিস্তানের সংখ্যালঘু নাগরিকদের কেউ মেয়াদ শেষ হওয়ার পরও ভারতে অবস্থান করলে তাকে জরিমানা গুনতে হবে। সে ক্ষেত্রে মেয়াদ শেষ হওয়ার পর থেকে ৯০ দিন পর্যন্ত ১০০ রুপি, ৯১ দিন থেকে দুই বছর পর্যন্ত ২০০ রুপি এবং দুই বছরের বেশি থাকলে ৫০০ রুপি জরিমানা ধার্য করা হবে।

অন্যদিকে একই সময়ের জন্য এই তিন দেশের সংখ্যালঘু ব্যতীত অন্য ধর্মের নাগরিকদের ক্ষেত্রে জরিমানা ধার্য করা হয়েছে যথাক্রমে ৩০০ ডলার বা ২১ হাজার রুপি, ৪০০ ডলার বা ২৮ হাজার রুপি এবং ৫০০ ডলার বা ৩৫ হাজার রুপি। এই জরিমানা সংখ্যালঘুদের জন্য রুপিতে ধার্য করা হলেও অন্য সম্প্রদায়ের লোকদের জন্য তা ডলারে ধার্য করা হয়। নতুন এই ভিসা নীতিমালা এফআরআরও এর ওয়েবসাইটে প্রকাশ করা হয়।

এদিকে ভারতীয় ভিসার এই নতুন নীতিমালাকে ধর্মীয় বৈষম্য উল্লেখ করে বাংলাদেশ পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের একাধিক কর্মকর্তা বলেন, দুই দেশের আগামী দ্বিপাক্ষিক বৈঠকে এই বিষয়টি তারা তুলে ধরবেন।