advertisement
আপনি দেখছেন
সর্বশেষ আপডেট: 10 মিনিট আগে

কয়েকদিন ধরে বিশ্বব্যাপী আলোচিত বিষয় আন্তর্জাতিক আদালতে মিয়ানমারকে দাঁড় করিয়েছে আফ্রিকার ছোট্ট দেশ গাম্বিয়া। এবার গাম্বিয়া অভিযোগ করলো, মিয়ানমারের স্টেট কাউন্সিলর অং সান সু চি আদালতকে মিথ্যা তথ্য দিয়ে বিভ্রান্ত করেছেন। ১২ ডিসেম্বর তৃতীয় দিনের যুক্তি তর্ক উপস্থাপন পর্বের শুরুতেই আন্তর্জাতিক আদালতে দেয়া অং সান সু চি ও তার সহযোগী অধ্যাপক উলিয়াম সিবার্সের বক্তব্যকে খণ্ডন করে এমন কথা বলেন গাম্বিয়ার এজেন্ট পল রাইখলার।

suu kyi 2019

আদালতের সামনে যুক্তি খণ্ডন করতে গিয়ে গাম্বিয়ার এজেন্ট বলেন, রোহিঙ্গাদের তাদের নিজ ইচ্ছায়, নিরাপদে এবং মর্যাদার সঙ্গে রাখাইনে ফিরিয়ে নেয়ার ব্যাপারে মিয়ানমার আদালতকে মিথ্যা তথ্য দিয়েছে। গত সেপ্টেম্বরে জাতিসংঘের ফ্যাক্ট ফাইন্ডিং মিশন রিপোর্টও উল্লেখ করেন পল রাইখলার। সেই রিপোর্টে বলা হয়েছিল, রাখাইনের বর্তমান পরিস্থিতি রোহিঙ্গাদের ফিরে যাওয়ার জন্য উপযোগী নয়।

গাম্বিয়ার এই এজেন্ট বলেন, আদালতে মিয়ানমারের বক্তব্যে রোহিঙ্গাদের বাংলাদেশে পালিয়ে যাওয়ার মূল কারণ লুকিয়ে আছে। তাই উদ্বাস্তু রোহিঙ্গাদের ফিরিয়ে নেয়ার ব্যাপারে তাদের প্রতিশ্রুতি কেবলমাত্র বক্তব্য সর্বস্ব।

এদিকে আদালতকে মিয়ানমার জানিয়েছে, রাখাইনে মিয়ানমার সেনাবাহিনীর কোনো সংশ্লিষ্টতাই ছিল না। এরপর গাম্বিয়ার এজেন্ট আদালতকে সেনা নির্যাতনের একটি ছবি দেখান। তখন মিয়ানমার বলে, ছবিটি মিয়ানমারের উত্তর রাখাইনের মংডু থেকে তোলা। সেই এলাকায় সেনা মোতায়েনের পর মিয়ানমার সেনাবাহিনীর একজন কর্মকর্তা ছবিটি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রকাশ করে।

প্রসঙ্গত, মিয়ানমারের রাখাইন রাজ্যে রোহিঙ্গা মুসলমানদের গণহত্যার অভিযোগ এনে আন্তর্জাতিক আদালতের (আইসিজে) জেনোসাইড ট্রাইব্যুনালে একটি মামলা দায়ের করে গাম্বিয়া। গত ১০ ডিসেম্বর থেকে মামলাটি কার্যক্রম শুরু হয়। সেই মামলায় আজ তৃতীয় দিনের মতো বাংলাদেশ সময় বিকাল তিনটায় শুনানি শুরু হয়।

sheikh mujib 2020