advertisement
আপনি দেখছেন

ইরান ইস্যুতে আমেরিকার বিরুদ্ধে অবস্থান নিয়েছেন জাতিসংঘ মহাসচিব অ্যান্তোনিও গুতেরেস। ইরানের বিরুদ্ধে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করে আমেরিকা জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদের ২২৩১ নম্বর প্রস্তাব লঙ্ঘন করেছে বলে মন্তব্য করেছেন তিনি।

un general secretary

প্রসঙ্গত, মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প পরমাণু সমঝোতার সমালোচনা করে বহুবার একে আমেরিকার জন্য সবচেয়ে খারাপ চুক্তি হিসেবে অভিহিত করেছেন। শেষ পর্যন্ত গত বছর ৮ মে এই সমঝোতা থেকে বেরিয়ে গিয়ে ইরানের ওপর ফের নিষেধাজ্ঞা আরোপ করে।

জাতিসংঘ মহাসচিব গতকাল বুধবার ২২৩১ নম্বর প্রস্তাব নিয়ে নিজের প্রতিবেদন তুলে ধরতে গিয়ে বলেন, ইরানের বিরুদ্ধে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করে জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদের ২২৩১ নম্বর প্রস্তাব লঙ্ঘন করেছে আমেরিকা।

পরমাণু সমঝোতা থেকে আমেরিকার বেরিয়ে যাওয়ার ঘটনায় দুঃখ প্রকাশ করে গুতেরেস বলেছেন, নিরাপত্তা পরিষদের ২২৩১ নম্বর প্রস্তাব অনুযায়ী সব দেশ ইরানের সঙ্গে অবাধে ব্যবসা করতে পারবে। আমেরিকার পক্ষ থেকে ব্যাপক চ্যালেঞ্জ সৃষ্টি করা সত্ত্বেও ইরান পরমাণু সমঝোতায় অটল রয়েছে। বিষয়টিকে তিনি সন্তোষজনক বলে মন্তব্য করেন।

ইরানি গণমাধ্যমে বলা হয়েছে, আন্তর্জাতিক সমাজের প্রচণ্ড বিরোধিতা উপেক্ষা করে ট্রাম্প প্রশাসন তেহরানের ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপ করে সর্বোচ্চ চাপ প্রয়োগের নীতি অবলম্বন করেছে। সর্বশেষ পদক্ষেপ হিসেবে মার্কিন অর্থ মন্ত্রণালয় গতকাল বুধবার এক বিবৃতিতে একটি চক্র ইরানি অস্ত্র ইয়েমেনে সরবরাহ করছে দাবি করে ইরানের সঙ্গে সম্পর্ক রাখার দায়ে একজন ব্যক্তিকে, পাঁচটি সংস্থা এবং দুটি জাহাজের ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপের কথা জানিয়েছে। মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী মাইক পম্পেও আবারো বলেছেন, ইরানের ওপর সর্বোচ্চ চাপ প্রয়োগের নীতি অব্যাহত থাকবে।