advertisement
আপনি দেখছেন
সর্বশেষ আপডেট: 27 মিনিট আগে

ভারতে মুসলিম-বিরোধী নাগরিকত্ব সংশোধনী বিল পাসের প্রতিবাদে বিক্ষোভে দেশটির একের পর এক রাজ্য উত্তাল হচ্ছে। উদ্ভুত পরিস্থিত মোকাবেলায আসাম-ত্রিপুরার পর এবার মেঘালয়ের রাজধানী শিলংয়ে অনির্দিষ্টকালের জন্য কারফিউ জারি করা হয়েছে। বন্ধ করে দেয়া হয়েছে মোবাইল ইন্টারনেট ও এসএমএস সেবা।

protests in meghalayaমেঘালয়ে বিক্ষোভ

এনডিটিভির এক প্রতিবেদনে বলা হয, নাগরিকত্ব সংশোধনী বিলকে কেন্দ্র করে বৃহস্পতিবার মেঘালয়ের রাজধানী শিলংয়ে অনির্দিষ্টকালের কারফিউ জারি এবং দুদিনের জন্য মোবাইল ইন্টারনেট ও এসএমএস সেবা বন্ধ করে দিয়েছে রাজ্য সরকার।

মোবাইল ফোনে ধারণ করা এক ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে শিলংয়ের রাস্তায় অন্তত দুটি গাড়িতে অগ্নিসংযোগ করা হচ্ছে। টুইটারে পোস্ট করা অপর এক ভিডিওতে বৃহস্পতিবার রাতে শহরের প্রধান সড়কে বিশাল টর্চলাইট মিছিল বের করতে দেখা যায়।

এদিকে রাজধানী থেকে মাত্র ২৫০ কিলোমিটার দূরে উইলিয়ামনগরে হেলিকপ্টার থেকে নামার পর মেঘালয়ের মুখ্যমন্ত্রী কনরাড সাংমাকে ধুয়োধ্বনি দেন নাগরিকত্ব বিল-বিরোধী বিক্ষোভকারীরা। তার গাড়িবহরের সামনেই তরুণ-তরুণীরা ‘কনরাড ফিরে যাও’ স্লোগান দিতে থাকে।

এমন প্রেক্ষাপটে এক টুইটবার্তায় 'জনগণকে ভুল তথ্য না ছড়ানোর' আহ্বান জানিয়েছে মেঘালয় পুলিশ। সেইসঙ্গে শিলংয়ের কিছু এলাকায় কারফিউ জারি ও মোবাইল এসএমএস সেবা বন্ধের কথা জানানো হয়।

এর আগে ভারতে নাগরিকত্ব সংশোধনী বিলের প্রতিবাদে উত্তর-পূর্বাঞ্চলের আসাম রাজ্যে চলমান বিক্ষোভ রোধে কারফিউ জারি করে রাজ্য সরকার। এছাড়া পাশবর্তী ত্রিপুরা রাজ্যেও বিক্ষোভ ছড়িয়ে পড়লে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে সেনা মোতায়েনসহ নিরাপত্তা জোরদার করা হয়। তারপরেও এ বিলের প্রতিবাদে আসাম-ত্রিপুরার হাজারো মানুষ রাস্তায় নেমে বিক্ষোভ করছে। ক্ষোভে ফুঁসছে পশ্চিমবঙ্গের মানুষও।

sheikh mujib 2020