advertisement
আপনি দেখছেন

ইরানের সঙ্গে গোপনে সম্পর্ক উন্নয়নের চেষ্টা করছে সৌদি আরব। পাশাপাশি রিয়াদের অর্থনৈতিক সংকটে যুক্তরাষ্ট্র ও তাদের মিত্র রাষ্ট্রগুলো দেশটিকে কতটা সমর্থন করবে এ নিয়েও উদ্বিগ্ন সৌদি কর্মকর্তারা। শুক্রবার প্রকাশিত এক প্রতিবেদনে এমনটাই জানিয়েছে মার্কিন গণমাধ্যম ওয়াল স্ট্রিট জার্নাল।

soudi iran flagইরানের সঙ্গে গোপনে সম্পর্ক উন্নয়ন করতে চায় সৌদি আরব

প্রতিবেদনে বলা হয়, সৌদি আরবের সঙ্গে দিন দিন ইরানের সম্পর্কের অবনতি ও উত্তেজনা বেড়ে চলায় দেশটির অর্থনৈতিক অবস্থা আরো খারাপ হতে পারে। এ নিয়ে দেশটির কর্মকর্তারা ব্যাপক উদ্বিগ্ন। সেই সঙ্গে এমন পরিস্থিতিতে মার্কিন সরকার ও মিত্র রাষ্ট্রগুলো তাদের কতটা পৃষ্টপোষকতা দেবে তা নিয়েও সৌদি কর্মকর্তারা উদ্বিগ্ন। তাই এমন অবস্থায় তেহরানের সঙ্গে রিয়াদের সম্পর্ক উন্নয়নের পথ বেছে নেয়াকে সঠিক সিদ্ধান্ত বলে মনে করছে দেশটি।

প্রসঙ্গত, গত সেপ্টেম্বরে সৌদি আরবের সর্ববৃহৎ তেল শোধনাগার আরামকোর ওপর ড্রোন ও ক্ষেপণাস্ত্র হামলা চালায় ইয়েমেনের হুতি বিদ্রোহীরা। এর পর থেকেই ইরানের সঙ্গে নিজেদের সম্পর্ক উন্নয়নের চিন্তা-ভাবনা করছে রিয়াদ।

oil mil soudiহামলা চালানোর পর সৌদি আরবের সর্ববৃহৎ তেল শোধনাগার আরমাকো

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একজন সৌদি কর্মকর্তার বরাত দিয়ে গণমাধ্যমটি জানায়, আরমকোর ওই সর্ববৃহৎ তেল শোধনাগারে হামলার পর পরিস্থিতি পাল্টে গেছে। যদিও ওই হামলার জন্য ইরানকেই দায়ী করেছে সৌদি আরব ও যুক্তরাষ্ট্র। তবে সে অভিযোগ নাকচ করে দিয়েছে তেহরান। এরপর থেকে ইরানের সঙ্গে সম্পর্ক উন্নয়নে বাধ্য হয়েছে দেশটি।

ইরানের কর্মকর্তারাও জানিয়েছেন, তারা রিয়াদের সঙ্গে কোন ধরনের উত্তেজনা চান না। বরং আঞ্চলিক সকল দেশের সঙ্গে তারা বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক বজায় রাখতে চান।