advertisement
আপনি দেখছেন

ভারতে ‘মুসলিমবিরোধী’ নাগরিকত্ব আইনের বিরুদ্ধে দিল্লির জামিয়া মিলিয়া ইসলামিয়া বিশ্ববিদ্যালয়সহ বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা বিক্ষোভে গর্জে উঠেছে। গতকাল রোববার সন্ধ্যা থেকে ছাত্র বিক্ষোভ শুরু হয়, যা রাতভর চলতে থাকে। এ সময় পুলিশের সাথে ব্যাপক সংঘর্ষে শতাধিক শিক্ষার্থী আহত হন। এ ঘটনায় কয়েক শ’ শিক্ষার্থীকে আটক করা হয়েছে।

student protest indiaরাতভর ছাত্রদের সহিংস বিক্ষোভ

এনডিটিভির এক প্রতিবেদনে বলা হয়, জামিয়া মিলিয়া ইসলামিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ে ছাত্ররা রোববার সন্ধ্যায় বিভিন্ন যানবাহনে হামলা, ভাঙচুর ও অগ্নিসংযোগ করে। এ সময় পুলিশের সঙ্গে শিক্ষার্থীদের সংঘর্ষ বাঁধে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে ছাত্রদের ওপর লাঠিচার্জ ও কাঁদানে গ্যাস ছোঁড়ে পুলিশ। এ ঘটনায় ১০০ জনের মতো শিক্ষার্থী আটক করা হয়।

এদিকে আটক শিক্ষার্থীদের মুক্তির দাবিতে দিল্লি পুলিশের সদর দপ্তরের বাইরে মধ্যরাতেই জড়ো হয় বিপুল সংখ্যক মানুষ। তারা সদর দপ্তরের মূল রাস্তা অবরোধ করে রাখার পর ভোর সাড়ে তিনটার দিকে আটক শিক্ষার্থীদের ছেড়ে দেয়া হয়। শিক্ষার্থীদের সঙ্গে নিয়ে এলাকা ছাড়ের বিক্ষোভকারীরা।

এ ঘটনার প্রতিবাদে ভারতের বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ে বিক্ষোভে নামে শিক্ষার্থীরা। এর মধ্যে আলিগড় মুসলিম বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা রাস্তায় নামলে তাদের সাথে পুলিশের ব্যাপক সংঘর্ষ বাঁধে। এতে ১০ জন পুলিশ সদস্য ও ৩০ জনের মতো ছাত্র আহত হন। পরিস্থিতি আরো উত্তপ্ত হলে ছাত্রদের হোস্টেল খালি করার নির্দেশ দেয় পুলিশ। সেইসঙ্গে ইন্টারনেট পরিষেবা সাময়িক বন্ধ এবং ৫ জানুয়ারি পর্যন্ত বিশ্ববিদ্যালয় বন্ধ রাখার ঘোষণা দেয়া হয়।

ঘটনার প্রতিবাদে হায়দরাবাদের মওলানা আজাদ উর্দু বিশ্ববিদ্যালয়, বেনারস হিন্দু বিশ্ববিদ্যালয় ও কলকাতার যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরাও বিক্ষোভ মিছিল বের করে। এ সময় কতৃপক্ষের নিকট পরীক্ষা স্থগিত রাখারও দাবি জানানো হয়।

nrc asam protest4

এর আগে গত বুধবার ভারতীয় রাজ্যসভায় বিলটি পাশ করিয়ে নেয় বিজেপি সরকার। পরদিন বৃহস্পতিবার রাষ্ট্রপতি সাক্ষর করার মধ্য দিয়ে বিলটি আইনে পরিণত হয়। ফলে বাংলাদেশ, পাকিস্তান ও আফগানিস্তান থেকে ভারতে আসা অমুসলিমদের নাগরিকত্ব পাওয়ার সুযোগ করে দেয়া হয়। অন্যদিকে মুসলিম নাগরিকদের দেশছাড়া করার ব্যবস্থা করা হয়।

প্রসঙ্গত, ১৯৫৫ সালে পাশ হওয়া নাগরিকত্ব আইনে উল্লেখ ছিল, অন্য দেশ থেকে ভারতে আসা কেউ যদি নাগরিকত্ব চায় সেক্ষেত্রে তাকে কমপক্ষে ১১ বছর এ দেশে বসবাস করতে হবে। সেইসঙ্গে এর পক্ষে যথেষ্ট প্রমাণ ও নথিপত্র উপস্থাপন করতে হবে। কিন্তু সংশোধিত নতুন আইনে ভারতে টানা ৫ বছর ধরে থাকা অমুসলিমদের নাগরিকত্ব পাওয়ার জন্য অবেদন করতে পারবেন বলে উল্লেখ করা হয়েছে।