advertisement
আপনি দেখছেন

এনআরসি ও ক্যাব নিয়ে ভারতের পশ্চিমবঙ্গ রাজ্যজুড়ে আন্দোলনের নামে স্টেশন, রেলে আগুন ধরিয়ে দেওয়ার মতো মারাত্মক ঘটনা ঘটেছে। শুধু তাই নয়, দফায় দফায় বিভিন্ন রাস্তায় অবরোধ, টায়ার জ্বালিয়ে বিক্ষোভ হয়েছে আন্দোলনকারীদের। তবে এবার পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে কঠোর হয়েছে প্রশাসন।

nrc cab india westbengal

ইতোমধ্যে তাণ্ডব চালানোর অভিযোগে ৩৫৪ জনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। এ ছাড়া রাজ্যের বিভিন্ন জায়গায় ব্যাপক ধরপাকড় শুরু করেছে পুলিশ প্রশাসন। গ্রেপ্তারদের বিরুদ্ধে সরকারি সম্পত্তি ভাঙচুর, মানুষকে হয়রানিসহ একাধিক ধারায় মামলা রুজু করেছে পুলিশ।

স্থানীয় গণমাধ্যমে বলা হয়েছে, গত কয়েকদিন ধরে যেভাবে তাণ্ডব চলছিল তাতে ক্ষুব্ধ মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তড়িঘড়ি রবিবার রাতেই কালীঘাটের বাড়িতে জরুরি বৈঠকে বসেন তিনি।

খবরে বলা হয়েছে, বৈঠকে রাজ্যের সাম্প্রতিক পরিস্থিতি নিয়ে সার্বিক আলোচনা হয়। সেখানে মুখ্যমন্ত্রী রাজ্য পুলিশকে সতর্ক এবং সক্রিয় থাকার নির্দেশ দেন। এ ছাড়া হাঙ্গামা হলেই কড়া হাতে মোকাবিলা করার জন্যে পুলিশ প্রশাসনকে নির্দেশ দেন।

এর পরই পুলিশ প্রশাসনের পক্ষ থেকে কড়া হাতে বিক্ষোভ মোকাবিলা শুরু হয়। ব্যাপক ধরপাকড় শুরু হয়। এখন পর্যন্ত রাজ্যে ৩৫৪ জনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। সরকারি সম্পত্তি ভাঙচুর, রেল ভাঙচুর, সরকারি বাসে ভাঙচুর, সরকারি হাসপাতালে ভাঙচুরের ঘটনায় এদের গ্রেফতার করা হয়েছে।

পুলিশ প্রশাসনের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, অরাজকতা করলে ছাড় নয়। ইতিমধ্যে পুলিশের পক্ষ থেকে হেল্প লাইন চালু করা হয়েছে। কোনও মানুষ সমস্যায় পড়লেই ওই হেল্পলাইন ফোন করতে বলা হয়েছে।