advertisement
আপনি দেখছেন

পাকিস্তানের মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত সাবেক সেনাপ্রধান ও সামরিক শাসক পারভেজ মোশাররফের পাশে দাঁড়িয়েছে দেশটির সেনাবাহিনী। বিশেষ আদালতে মোশাররফের মৃত্যুদণ্ডের রায়ের পর এক বিবৃতিতে পাকিস্তান সেনাবাহিনী বলেছে, আদালতের এই সিদ্ধান্ত সেনাবাহিনীর জন্য অত্যধিক বেদনার ও যন্ত্রণাদায়ক।

parvej moshrraf pakistan

একটি সূত্রের বরাত দিয়ে ডন জানিয়েছে, রায়ের পর রাওয়ালপিন্ডির সেনা সদর দফতরে শীর্ষ কর্মকর্তাদের বৈঠকের পর আন্তঃবাহিনী জনসংযোগ পরিদফতরের (আইএসপিআর) মহা পরিচালক মেজর জেনারেল আসিফ গফুর এই বিবৃতি দেন।

বিবৃতিতে বলা হয়েছে, একজন সাবেক সেনা কর্মকর্তা, সামরিক বাহিনীর জয়েন্ট স্টাফ কমিটির চেয়ারম্যান ও পাকিস্তানের সাবেক প্রেসিডেন্ট যিনি ৪০ বছর দেশের জন্য কাজ করেছেন, দেশ রক্ষার জন্য যুদ্ধ করেছেন তিনি কখনোই বিশ্বাসঘাতকতা করতে পারেন না।

বিবৃতিতে আরো বলা হয়েছে, আইনি প্রক্রিয়ায় পরিষ্কারভাবে মোশাররফের মৌলিক অধিকার অস্বীকার করা হয়েছে। সংবিধান অনুসারে ন্যায়বিচার করা হবে বলে পাকিস্তানের সশস্ত্র বাহিনী আশা করছে।

পেশোয়ার হাইকোর্টের প্রধান বিচারপতি ওয়াকার আহমাদ শেঠের নেতৃত্বাধীন তিন বিচারকের বিশেষ আদালত মঙ্গলবার ছয় বছর ধরে ঝুলে থাকা এ মামলার রায় দেন।

পাকিস্তানের ইতিহাসে এই প্রথম বেসামরিক আদালতে দেশদ্রোহিতার অভিযোগে কোনো সাবেক সেনাপ্রধানের বিচারের রায় এসেছে।

উল্লেখ্য, ১৯৯৯ সালে এক সেনা অভ্যুত্থানের মধ্য দিয়ে ক্ষমতা দখলের পর ২০০১ থেকে ২০০৮ সাল পর্যন্ত প্রেসিডেন্ট হিসেবে দায়িত্ব পালন করা পারভেজ মোশাররফ এখন আছেন সংযুক্ত আরব আমিরাতে। সেখান থেকে পাঠানো এক ভিডিও বার্তায় রাষ্ট্রদ্রোহের অভিযোগকে তিনি ভিত্তিহীন বলেছেন।