advertisement
আপনি দেখছেন

বাবা থেকেও না থাকায় বাদাম বিক্রি ও টিউশনি করিয়ে সংসার চালাতো মেয়েটি। নিজের পড়াশোনা, মানসিক ভারসাম্যহীন মায়ের চিকিৎসা ও ছোট ভাইয়ের দেখাশোনাও করতো সে। এভাবে একাদশ শ্রেণিতে এসে দারুণ এক সাফল্যের দেখা পেলো ভারতের তামিলনাড়ুর জয়লক্ষ্মী।

jayalakshmi india

সে এবার পাড়ি দিচ্ছে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে মহাকাশ গবেষণা সংস্থা নাসায়। সংস্থাটির বিজ্ঞানীদের সঙ্গে দেখা করার সুযোগ পাচ্ছে বিজ্ঞান প্রিয় জয়লক্ষ্মী। ছোটবেলা থেকেই পরমাণু বিজ্ঞানী এপিজে আব্দুল কালামের মতো হতে চেয়েছে সে।

পুরোটাই নিজের চেষ্টায় নাসার মহাকাশচারীদের সঙ্গী হতে চলেছে জয়ালক্ষ্মী। সব কিছু ঠিকঠাক থাকলে ২০২০ সালের মে মাসে নাসায় যাওয়ার কথা জানিয়ে সে।

যেভাবে নাসায় যাওয়ার সুযোগ পেলো, তা নিজেই জানিয়েছে জয়ালক্ষ্মী। তার বর্ণনা অনুযায়ী, একদিন খবরের কাগজে দেখতে পাই যে, নাসা যেতে আগ্রহী শিক্ষার্থীদের জন্য একটা প্রতিযোগিতার আয়োজন করেছে একটি সংস্থা। ফর্ম ফিলাপ করে সে প্রতিযোগিতার পরীক্ষায় সফল হয়েই এই সুযোগ পাচ্ছি।

নাসার টিকিট পাওয়ার পর কয়েকজন শিক্ষক ও সহপাঠীরা মিলে পাসপোর্ট বানিয়ে দিয়েছে জয়ালক্ষ্মীর। এখন যুক্তরাষ্ট্রে যাওয়ার খরচও জোগাড় করতে হচ্ছে তাকে। এ নিয়ে জেলা শাসকের কাছে সাহায্যের জন্য আবেদন জানানো হলেও এখন পর্যন্ত কোনো সমাধান আসেনি।

এর আগে মার্কিন মহাকাশ গবেষণা সংস্থা ন্যাশনাল অ্যারোনটিক্স অ্যান্ড স্পেস অ্যাডমিনিস্ট্রেশনে (নাসা) ডাক পেয়েছিলেন নবম শ্রেণির ছাত্রী অভিনন্দা ঘোষ। ভারতের দিল্লির একটি বেসরকারি সংস্থা আয়োজিত বিজ্ঞান অলিম্পিয়াডে সফল হওয়ায় সুযোগটি পান এই কিশোরী। অভিনন্দা পশ্চিমবঙ্গের পুরুলিয়ার তেলকলপাড়ার বাসিন্দা।

sheikh mujib 2020