advertisement
আপনি দেখছেন

ইরানের শীর্ষ কমান্ডার জেনারেল কাসেম সোলায়মানি হত্যার ৪০ দিনের মাথায় ফের ইরাকে অবস্থিত মার্কিন সেনাঘাঁটিতে রকেট হামলা চালানো হয়েছে। বৃহস্পতিবার স্থানীয় সময় রাত পৌনে ৯টার দিকে দেশটির উত্তরাঞ্চলীয় কিরকুক প্রদেশে অবস্থিত কে১ নামের মার্কিন সেনাঘাঁটিতে রকেট হামলা চালানো হয়।

rocket attack 1

এ ঘটনায় এখন পর্যন্ত কোনো হতাহতের খবর জানা যায়নি। এমনকি এখন পর্যন্ত কেউ এই হামলার দায় স্বীকার করেনি। তবে এই হামলার পর পরই ওই এলাকার খুব নিচ দিয়ে মার্কিন সামরিক বিমান উড়তে দেখা গেছে।

ইরাকি নিরাপত্তা সূত্রের বরাত দিয়ে এসব তথ্য জানায় ফরাসি বার্তা সংস্থা এএফপি।

এদিকে, এই হামলার ঘটনায় ইরান ও যুক্তরাষ্ট্রের মধ্যকার উত্তেজনা ফের চাঙ্গা হয়ে উঠবে বলে আশঙ্কা করছেন অনেকে। এমনকি এ হামলার পর ক্ষুব্দ প্রতিক্রিয়া দেখিয়েছেন ইরাকের শিয়া আইনপ্রণেতারা।

এর আগে গত ২৭ ডিসেম্বর এই একই সেনাঘাঁটিতে বড় ধরনের রকেট হামলা চালানো হয়। এতে ঘাঁটিতে থাকা এক মার্কিন ঠিকাদার নিহন হন। তখন এ হামলার জন্য ইরান সমর্থিত ইরাকি গোষ্ঠী কাতাইব হিজবুল্লাহকে দায়ী করে যুক্তরাষ্ট্র এবং মার্কিন সেনারা পাল্টা হামলা চালিয়ে ওই গোষ্ঠীর ২৫ জন সদস্যকে হত্যা করে।

এ ঘটনার কয়েকদিন পরই গত ৩ জানুয়ারি ইরাকের রাজধানী বাগদাদের আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের কাছে বিমান হামলা চালিয়ে ইরানের রেভল্যুশনারি গার্ডের অভিজাত কুদস বাহিনীর কমান্ডার জেনারেল কাসেম সোলায়মানিকে হত্যা করে মার্কিন বাহিনী। এ ঘটনায় ইরাকের মিলিশিয়া নেতা আবু মাহদি আল-মুহানদিসসহ আরো ১০ জন নিহত হন। মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের নির্দেশেই এ হামলা চালানো হয় বলে নিশ্চিত করে পেন্টাগন।

এর দুই দিন পর প্রতিশোধ নিতে ইরাকে অবস্থিত মার্কিন সেনাঘাঁটিতে ক্ষেপণাস্ত্র হামলা চালায় ইরান। এতে বেশ কিছু মার্কিন সেনা হতাহত হয় বলে দাবি করে তেহরান।

sheikh mujib 2020