advertisement
আপনি দেখছেন

ইরাক থেকে আংশিক সেনা প্রত্যাহার করতে চায় মার্কিন বাহিনী। অথচ সব মার্কিন সেনা প্রত্যাহার করার ব্যাপারে ইরাকের জাতীয় সংসদে প্রস্তাব পাস হয়েছে। এমনকি এর আগে মার্কিন বাহিনীও সব সেনা প্রত্যাহারের প্রতিশ্রুতি দিয়েছিল।

us troops in iraq

গত সপ্তাহে জর্ডানের রাজধানী আম্মানে কানাডার রাষ্ট্রদূতের বাসায় অত্যন্ত গোপনীয়তার সাথে ইরাক ও মার্কিন প্রতিনিধিদের মধ্যে বৈঠক হয়েছে।

ওই বৈঠকের সাথে ঘনিষ্ঠ একটি সূত্রের বরাত দিয়ে মিডল ইস্ট আই গতকাল রোববার এ খবর দিয়েছে।

খবরে বলা হয়েছে, ইরাকি পার্লামেন্টে পাস হওয়া প্রস্তাব মেনে নিতে অস্বীকার করেছে মার্কিন সামরিক বাহিনী। সেইসঙ্গে তারা ইরাকের নিরাপত্তা কর্মকর্তাদের কাছে নতুন প্রস্তাব দিয়েছে যে, ইরাক থেকে মার্কিন বাহিনীর একটি অংশ প্রত্যাহার করতে তারা রাজি।

পার্সটুডে বলছে, মার্কিন সামরিক বাহিনীর একজন প্রতিনিধি ইরাকি পক্ষকে বলেছেন, ইরাকের শিয়া অধ্যুষিত এলাকাগুলো ছাড়তে প্রস্তুত রয়েছে মার্কিন সেনারা। এ ধরনের একটি ঘাঁটি হচ্ছে আল-বালাদ ঘাঁটি, যা রাজধানী বাগদাদ থেকে ৮০ কিলোমিটার উত্তরে অবস্থিত। তবে ইরাকের আইন আল-আসাদ ঘাঁটি থেকে সেনা প্রত্যাহার করার কথা একেবারেই নাকচ করে দিয়েছে মার্কিন পক্ষ।

তারা বলেছে, আইন আল-আসাদ ঘাঁটি থেকে সেনা প্রত্যাহারের প্রশ্নই ওঠে না।

উল্লেখ্য, আইন আল-আসাদ হচ্ছে ইরাকে অবস্থিত মার্কিন বাহিনীর সবচেয়ে বড় ঘাঁটি যেটি পশ্চিমাঞ্চলীয় আনবার প্রদেশে অবস্থিত। সম্প্রতি ওই ঘাঁটিতে ক্ষেপণাস্ত্র হামলা চালায় ইরান।