advertisement
আপনি দেখছেন

ইরানের ওপর আমেরিকা যে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছে তা যে অর্থহীন তা ওয়াশিংটনকে বোঝাচ্ছে আঙ্কারা। তুরস্কের পররাষ্ট্রমন্ত্রী মেভলুত চ্যাভুসওগ্লু এ কথা জানিয়েছেন।

turkey foreign minister chavusoluglu iran us

জার্মানির মিউনিখে এক নিরাপত্তা সম্মেলনে তিনি বলেন, ‘আমরা সব ধরনের নিষেধাজ্ঞার বিরোধী। আমরা মনে করি, ইরানের বিরুদ্ধে নিষেধাজ্ঞায় কোনো ফল আসবে না, বরং ইরানের সঙ্গে যোগাযোগ ও সম্পর্ক বাড়ানো উচিত।’

তুর্কি পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, আমেরিকা ও ইরান ইস্যুতে একটা সমস্যা হলো ট্রাম্প নিঃশর্তভাবে সাক্ষাত চান, কিন্তু ইরান তা চায় না। ইরান তাদের ওপর থেকে নিষেধাজ্ঞার প্রত্যাহার চায়। তুর্কি পররাষ্ট্রমন্ত্রীর মতে আমেরিকা কিছু নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহারে রাজি হলে বৈঠক সম্ভব হতে পারে।

পার্সটুডে বলছে, কাতার, সিরিয়া ও লিবিয়া প্রসঙ্গেও বক্তব্য রাখেন চ্যাভুসুগ্লু।

কাতারের বিরুদ্ধে অবরোধ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, পারস্য উপসাগরীয় কোনো কোনো দেশ মনে করে, তারা বিভিন্ন দেশ ও সংস্থাকে অর্থের বিনিময়ে কিনে নিতে পারবে।

লিবিয়া ইস্যুতে তুর্কি পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, লিবিয়ার খালিফা হাফতার হচ্ছে যুদ্ধকামী, আঙ্কারা সেদেশের বৈধ সরকারের সঙ্গে সহযোগিতা অব্যাহত রাখবে।