advertisement
আপনি দেখছেন

অভিবাসন নীতিতে কঠোর হচ্ছে যুক্তরাজ্য সরকার। নতুন পরিকল্পনার অংশ হিসেবে কম দক্ষতাসম্পন্ন কর্মীরা দেশটির ভিসা পাবেন না। তারা বলছে, পয়েন্টভিত্তিতে নতুন অভিবাসন ব্যবস্থা করা হবে। যেন অর্থনৈতিকভাবে দেশটি আরো শক্তিশালী হতে পারে।

uk job

দেশটির স্বরাষ্ট্র অধিদপ্তরের বরাত দিয়ে বিবিসির প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়, ইউরোপ থেকে আসা সস্তা শ্রমিকদের ওপর নির্ভর না করে দক্ষ কর্মী ধরে রাখার ক্ষেত্রে জোর দিচ্ছে যুক্তরাজ্য। এ জন্য ইউরোপিয়ান ইউনিয়ন ও এর বাইর থেকে যারা যুক্তরাজ্যে আসতে চায়, তাদের নির্দিষ্ট মাপকাঠিতে যাচাই করা হবে।

নতুন এ নীতি অনুযায়ী বাইরের দেশ থেকে যেসব কর্মী যুক্তরাজ্যে আসতে চায় তাদের ইংরেজি জানতে হবে এবং অনুমোদিত স্পন্সরের অধীনে দক্ষতা সম্পন্ন কোনো চাকরিতে নিয়োগ পেতে হবে। এক্ষেত্রে তা নিশ্চিত করতে পারলে প্রত্যেকে ৫০ পয়েন্ট পাবে।

দেশটিতে কাজ করার অনুমতি পেতে হলে সব মিলিয়ে অভিবাসীদের ৭০ পয়েন্ট নিশ্চিত করতে হবে। যার মধ্যে যোগ্যতা, বেতন ও যেই খাতে কর্মীর অভাব রয়েছে এমন কোনো খাতে কাজ করলেও পয়েন্ট পাওয়া যাবে।

ব্যবসা প্রতিষ্ঠানগুলোকে যুক্তরাজ্য সরকার জানায়, যেন তারা ইউরোপিয়ান ইউনিয়নের দেশগুলো ও তাদের মধ্যে বাধাহীন চলাচল বন্ধ হয়ে যাওয়ার বিষয়টির সঙ্গে খাপ খাইয়ে ও সমন্বয় করে নেয়। পাশাপাশি অভিবাসন পদ্ধতির ওপর নির্ভরশীল না থেকে কর্মী ধরে রাখা, উৎপাদনশীলতা ও প্রযুক্তির উন্নয়নে বিনিয়োগ করে।

এক্ষেত্রে সরকার মনে করছে, নতুন কর্মী না বাড়ানো ভালো। বরং যে ৩২ লাখ ইউরোপিয়ান ইউনিয়নের নাগরিক যুক্তরাজ্যে থাকার অনুমতি চেয়েছে, তাদের দিয়ে শ্রমজাবারের চাহিদা মেটানো যেতে পারে। পাশাপাশি কৃষি খাতে মৌসুমি শ্রমিক আসার অনুমোদিত পরিমাণ ১০ হাজার করতে যাচ্ছে সরকার। এছাড়া ইয়ুথ মোবিলিটি অ্যাগ্রিমেন্টের অধীনে প্রতিবছর ২০ হাজার তরুণ যুক্তরাজ্যে আসার সুযোগ পাবে।

দেশটির সরকার কর্তৃক অভিবাসন নীতিতে প্রস্তাবিত পয়েন্ট পদ্ধতি

 প্রয়োজনীয় যোগ্যতা    পয়েন্ট
 অনুমোদিত স্পন্সরের কাছ থেকে চাকরির প্রস্তাব- ২০    ২০
 যথাযথ দক্ষতার কাজ    ২০
 প্রয়োজনীয় ইংরেজি দক্ষতা    ১০

 

 বেতনের জন্য পয়েন্ট    পয়েন্ট
 ২০,৪৮০-২৩,০৩৯ পাউন্ড    ০
 ২৩,০৪০-২৫,৫৯৯ পাউন্ড    ১০
 ২৫,৬০০ বা তার চেয়ে বেশি     ২০

 

 অতিরিক্ত পয়েন্ট    পয়েন্ট
 যেসব ক্ষেত্রে কর্মী কম সেসব ক্ষেত্রে চাকরি    ২০
 কাজের সাথে সম্পর্কিত বিষয়ে পিএইচডি    ১০
 বিজ্ঞান, প্রযুক্তি, ইঞ্জিনিয়ারিং ও ম্যাথমেটিকসে পিএইচডি    ২০

 

অন্যদিকে, যুক্তরাজ্যে পড়ালেখা করতে চাইলে বিদেশি ছাত্রদের একটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের কাছ থেকে প্রস্তাব পাওয়া লাগবে, ইংরেজি জানা লাগবে এবং তারা নিজেরা নিজেদের আর্থিকভাবে সহায়তা করতে পারবে- এমন সক্ষমতা দেখাতে হবে।