advertisement
আপনি দেখছেন

চীনে নভেল করোনাভাইরাসে (কোভিড-১৯) সব মিলিয়ে এখন পর্যন্ত মৃতের সংখ্যা ২১১৩ জন। এর মধ্যে চীনের বাইরে মাত্র আটজন মারা গেছে। নতুন করে ভাইরাসটিতে আক্রান্ত হয়েছেন আরো ৩৪৯ জন। এ নিয়ে বিশ্বব্যাপী আক্রান্তের সংখ্যা ৮২ হাজার ছাড়ালো। তবে আগের দিনের তুলনায় আক্রান্তের সংখ্যা অনেক কমেছে।

passengers wrap with plastics

ভাইরাসটির কারণে মৃত্যুর মিছিল যেন কোনোভাবেই থামছে না। এর প্রতিষেধক আবিষ্কারে তেমন সুখবর দিতে পারছেন না বিজ্ঞানীরা।

তাই জনমনে ভাইরাসটি রীতিমত একটি আতঙ্কে পরিণত হয়েছে। বিশেষ করে যারা এক দেশ থেকে অন্য দেশে ভ্রমণ করছেন তাদের মধ্যে আতঙ্কের পরিমাণ সবচেয়ে বেশি। যার ফলে ভাইরাসের সংক্রমণ থেকে রক্ষায় নিচ্ছেন নানা পদক্ষেপ। তেমনই দৃশ্য দেখা গেল অস্ট্রেলিয়ার একটি ফ্লাইটে।

ডেইলি মেইল জানায়, ফ্লাইটটি অস্ট্রেলিয়ার সিডনি থেকে হ্যামিল্টন দ্বীপে যাচ্ছিল। সেখানে দুইজন যাত্রী নিজেদের সম্পূর্ণ পলিথিনে মুড়িয়ে রেখেছেন। তাদের উভয়ের মুখে রয়েছে মাস্ক ও হাতে রয়েছে ভাইরাস প্রতিরোধক গ্লাভস।

এদিকে, চীনা স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় জানায়, গত ২৪ ঘণ্টায় শুধু হুবেই প্রদেশে ১০৮ জন মারা গেছে। আর আগের দিনের তুলনায় আক্রান্তের সংখ্যা কমেছে ১৬৯৩ জন।

এখন পর্যন্ত হুবেই প্রদেশে ৪৫ হাজার ৯০০ জন রোগীকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এদের মধ্যে ২ হাজার ২৮৫ জনের অবস্থা আশঙ্কাজনক। সুস্থ হয়ে হাসপাতাল থেকে ছাড়পত্র নিয়েছে ৯ হাজার ৬৭৬ জন।

চীনে এ ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছে ৭০ হাজার ৫৪৮ জন। আর চিকিৎসা শেষে বাড়ি ফিরেছে ১০ হাজার ৬১০ রোগী।

অন্যদিকে, করোনায় আক্রান্ত হয়ে চীনের বাইরে এখন পর্যন্ত ৮ জন মারা গেছেন। এর মধ্যে হংকং ও ইরানে দুইজন করে এবং তাইওয়ান, জাপান, ফ্রান্স ও ফিলিপাইনে একজন করে মারা গেছে।