advertisement
আপনি দেখছেন

মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের সফরকে ‘কেন্দ্র করে’ ভারতে বিতর্কিত নাগরিকত্ব সংশোধনী আইনের (সিএএ) বিরুদ্ধে নতুন করে বিক্ষোভে উত্তাল হয়েছে রাজধানী নয়াদিল্লি। গত দুই দিনের সহিংসতায় এখন পর্যন্ত অন্তত ১৭ জনের মৃত্যু হয়েছে। অভিযোগ উঠেছে, উদ্ভূত পরিস্থিতির মধ্যেই দিল্লির একটি মসজিদে আগুন দেয়াসহ মিনারে উঠে হনুমানের ছবি সম্বলিত একটি পতাকা উত্তোলন করেছে ক্ষমতাসীন বিজেপি সমর্থকরা।

dellhi mosque flag

এ ঘটনার একটি ভিডিও ফুটেজ সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ভাইরাল হয়েছে। সেখানে দেখা যায়, একদল উন্মত্ত জনতা জয় শ্রী রাম বলে স্লোগান দিচ্ছে। এ সময় তারা দিল্লির অশক নগর এলাকার একটি মসজিদে আগুন ধরিয়ে দেয়।

অপর এক ভিডিওতে দেখা যায়, কিছু লোক মসজিদের মিনারে উঠছে এবং সেখানে একটি পতাকা স্থাপনের চেষ্টা করছে। এ সময় তারা মসজিদের মাইক ভেঙে দেয় এবং সেখানে হনুমানের ছবি সম্বলিত একটি পতাকা উত্তোলন করে। পরে একটি ভারতীয় পতাকাও উত্তোলন করা হয়।

এদিকে, দিল্লিতে সিএএ-বিরোধী ও বিজেপি সমর্থকদের মধ্যে সহিংসতা ক্রমশই বেড়ে চলেছে। ইতোমধ্যে জাফরাবাদ, মৌজপুর, চাঁদবাগ, কারওয়াল নগরে কারফিউ জারি করা হয়েছে। বিক্ষোভকারীদের দেখামাত্র গুলির নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। এ ছাড়া উত্তর-পূর্ব দিল্লিতে আগামী এক মাসের জন্য ১৪৪ ধারা জারি করেছে প্রশাসন। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে বিভিন্ন পক্ষ থেকে সেনা মোতায়েনের দাবি উঠেছে।

এনডিটিভি বলছে, সংঘাতে এ পর্যন্ত নিহতের সংখ্যা বেড়ে ১৭ জনে দাঁড়িয়েছে। এ ছাড়া ৭০ জন গুলিবিদ্ধসহ আহত হয়েছেন প্রায় দেড় শতাধিক মানুষ।

প্রসঙ্গত, মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প গত সোমবার প্রথমবারের মতো ভারত সফরে যান। আর ওই দিনই বিতর্কিত সিএএ নিয়ে দুই পক্ষের মধ্যে সংঘাত শুরু হয়।

অন্যদিকে, দিল্লির পরিস্থিতি নিয়ে মঙ্গলবার সন্ধ্যায় বৈঠক করেছেন ভারতের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ। সহিংস পরিস্থিতি থামাতে না পারায় বেশ সমালোচনার মুখে পড়েছেন তিনি। যদিও ভারতের কেন্দ্রীয় সরকারের পক্ষ থেকে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আছে বলে দাবি করা হয়েছে।