advertisement
আপনি দেখছেন

ভারতের দিল্লিতে বিতর্কিত নাগরিকত্ব আইনের (সিএএ) বিরুদ্ধে আন্দোলনরত বিক্ষোভকারীদের দেখামাত্র গুলির নির্দেশ দিয়েছে স্থানীয় প্রশাসন। এ ছাড়া জাফরাবাদ, মৌজপুর, চাঁদবাগ, কারওয়াল নগরে ১৪৪ ধারা জারি করা হয়েছে। পরিস্থিতি মোকাবেলায় উত্তর-পূর্ব দিল্লিতে আগামী এক মাসের জন্য ১৪৪ ধারা জারি করেছে পুলিশ।

dellhi protest police

এদিকে, বিক্ষোভকারীদের সঙ্গে ক্ষমতাসীন দল বিজেপির সমর্থকদের সহিংসতায় রণক্ষেত্রে রূপ নেয়ায় দিল্লি-সংলগ্ন উত্তরপ্রদেশের গাজিয়াবাদেও ১৪৪ ধারা জারি করা হয়েছে। গাজিয়াবাদ-দিল্লি যান চলাচল বন্ধ করে দেয়া হয়েছে। টানা দুই দিন ধরে বন্ধ রয়েছে উত্তর-পূর্ব দিল্লির পাঁচটি মেট্রো স্টেশন।

পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে ইতোমধ্যে কয়েক হাজার সিআরপি নামানো হয়েছে। তবে সরকারি দলের নেতারা বলছেন, প্রয়োজনে সেনা মোতায়েন করা হোক।

এনডিটিভির খবরে বলা হয়, গত দুই দিনে সহিংসতায় এখন পর্যন্ত নিহতের সংখ্যা বেড়ে ১৭ জনে দাঁড়িয়েছে। এ ছাড়া ৭০ জন গুলিবিদ্ধসহ আহত হয়েছেন প্রায় দেড় শতাধিক মানুষ। মৌজপুরে এক সাংবাদিক গুলিবিদ্ধ হয়েছেন। আহত হয়েছেন আরো অন্তত চার সাংবাদিক। তাদের ধর্মীয় পরিচয় জানতে চেয়ে হেনস্থা করেছেন বিজেপি সমর্থকরা।

প্রসঙ্গত, মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প গত সোমবার প্রথমবারের মতো ভারত সফরে যান। আর ওই দিনই বিতর্কিত সিএএ নিয়ে দুই পক্ষের মধ্যে সংঘাত শুরু হয়।

অন্যদিকে, দিল্লির পরিস্থিতি নিয়ে মঙ্গলবার সন্ধ্যায় বৈঠক করেছেন ভারতের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ। সহিংস পরিস্থিতি থামাতে না পারায় বেশ সমালোচনার মুখে পড়েছেন তিনি। যদিও ভারতের কেন্দ্রীয় সরকারের পক্ষ থেকে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আছে বলে দাবি করা হয়েছে।

sheikh mujib 2020