advertisement
আপনি দেখছেন

পৃথিবীর তাপমাত্রা বেড়ে যাওয়ায় আর্কটিকের মেরু অঞ্চলের বরফ গলতে শুরু করেছে। যার মারাত্মক প্রভাব পড়েছে সেখানে বসবাসরত ভাল্লুকের জীবনে। খাদ্য সংকটে পড়ে বেঁচে থাকার তাগিদে তারা নারী ও শিশু ভাল্লুকদের হত্যা করে মাংস খাচ্ছে।

polar bearsমেরু ভাল্লুক ছবি: এএফপি

মেরু ভাল্লুকের এমন রূপ আগে কখনো দেখা যায়নি বলে জানিয়েছেন মস্কোর সেভের্তসভ ইনস্টিটিউট অফ ইকোলজি অ্যান্ড ইভোলিউশনের বিশেষজ্ঞ ইলিয়া মরদ্বিন্টেসেভ।

তিনি বলেন, এই ভাল্লুকরা যে নিজ প্রজাতির মাংস খায় তা অনেক আগে থেকেই জানা। কিন্তু এতদিন তাদের এমন নৃশংস রূপ দেখা যায়নি।

গবেষকরা বলছেন, মেরু ভাল্লুকরা সাধারণত বরফের ওপর থাকা সামুদ্রিক সিল শিকার করে বেঁচে থাকে। কিন্তু দিনকে দিন বরফ গলে যাওয়ায় তাদের তীরের দিকে চলে আসতে হচ্ছে। তাছাড়া অঞ্চলটিতে মানুষের আনাগোনা বেড়ে যাওয়ায় পর্যাপ্ত খাদ্য সংকটে পড়েছে প্রাণীগুলো।

ডেইলি মেইলের প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়, পৃথিবীর তাপমাত্রা বৃদ্ধি এবং মেরু অঞ্চলে মানুষের আনাগোনা ক্রমশ বাড়ছে। তরল প্রাকৃতিক গ্যাস উত্তোলনের কাজে ব্যবহৃত জাহাজগুলো সাধারণত এ পথেই চলাচল করে। ফলে ধ্বংস হয়ে যাচ্ছে সেখানের বরফখণ্ড। ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে ভাল্লুকের বাসস্থান।

সেখানে আরো উল্লেখ করা হয়, শিকার করা মৃতদেহগুলো বরফে পুঁতে জমা করছে মেরু ভাল্লুকরা। সাধারণত তাদের মধ্যে প্রচলিত খাবার সংরক্ষণ করে রাখার এ পদ্ধতিকে 'ক্যাচিং' বলা হয়।

sheikh mujib 2020