advertisement
আপনি দেখছেন

ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি জন্মসূত্রেই দেশটির নাগরিক। এ সংক্রান্ত্র কোনো কাগজপত্র তার নেই। ভারতীয় প্রধানমন্ত্রীর দফতর (পিএমও) এ তথ্য জানিয়েছে।

naraendra modi india

আনন্দবাজারের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, তথ্যের অধিকার আইনে (আরটিআই) মোদির নাগরিকত্ব নিয়ে এক ব্যক্তির প্রশ্নের জবাবে ওই তথ্য জানায় পিএমও অফিস।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, চলতি বছরের ১৭ জানুয়ারি শুভঙ্কর সরকার নামে এক ব্যক্তি আরটিআই-এর মাধ্যমে জানতে চান, প্রধানমন্ত্রীর নাগরিকত্বের কাগজপত্র রয়েছে কি না। তারই উত্তরে পিএমও-র সচিব প্রবীণ কুমার জানান, ১৯৫৫ সালের নাগরিকত্ব আইনের ৩ ধারা অনুযায়ী প্রধানমন্ত্রী জন্মসূত্রেই ভারতীয়।

প্রসঙ্গত, সংশোধিত নাগরিকত্ব আইন (সিএএ) নিয়ে ভারতজুড়ে যখন তোলপাড় চলছে, তখন এ ধরনের চাঞ্চল্যকর তথ্য প্রকাশ হলো।

আসাম রাজ্যে জাতীয় নাগরিক পঞ্জি (এনআরসি) তৈরির পরে বহু মানুষ নাগরিকত্ব প্রমাণে ব্যর্থ হয়ে ‘ডিটেনশন’ শিবিরে ঠাঁই পেয়েছেন। প্রশ্ন উঠেছে, এর পরে নাগরিকত্বের নথি চাওয়া হলে আমজনতাও যদি জন্মসূত্রে নাগরিকত্বের দাবি তোলে, তাহলে কি গ্রাহ্য হবে?

ভারতের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় এর আগে একাধিকবার জানিয়েছে, ২০১১ ও ২০১৫ সালের জাতীয় জনগণনা পঞ্জি প্রক্রিয়ার পরে দেয়া পরিচয়পত্র যাদের কাছে নেই তারা নাগরিক নন। দেশের মানুষের বড় অংশের কাছেই সেই পরিচয়পত্র নেই।

বিরোধীরা প্রশ্ন তোলেন, তবে বিজেপি কাদের ভোটে জিতল? তার জবাব দেয়নি নরেন্দ্র মোদি সরকার।

প্রসঙ্গত, কয়েক দিন আগে ভারতের রাজধানী নয়াদিল্লিতে সিএএ সমর্থক ও বিরোধীদের মধ্যে সংঘর্ষে অন্তত ৪০ জনের মৃত্যু হয়েছে। জ্বালিয়ে দেওয়া হয়েছে বিতর্কিত আইনের বিরোধিতাকারীদের বাড়িঘর।

sheikh mujib 2020