advertisement
আপনি দেখছেন

ভারতের রাজধানী নয়া দিল্লিতে সাম্প্রদায়িক সহিংসতাকে কেন্দ্র করে দেশটির সংসদের নিম্নকক্ষ লোকসভায় ধাক্কাধাক্কির ঘটনা ঘটনা ঘটেছে। দিনভর অচলাবস্থা ছিল উচ্চকক্ষ রাজ্যসভায়ও। গতকাল সোমবার ভারতীয় সংসদের উভয়কক্ষে এমন ঘটনা ঘটে।

india loksaba

দেশটির গণমাধ্যমগুলো বলছে, দিল্লির ঘটনা নিয়ে অবিলম্বে আলোচনা, কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহর পদত্যাগ এবং প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির বিবৃতি দাবিতে গতকাল দিনভর সরব ছিলেন লোকসভা ও বিধানসভার সদস্যরা। লোকসভায় সরকার ও বিরোধীদলীয় সদস্যদের মধ্যে ধাক্কাধাক্কি হলে পরিস্থিতি সামাল দিতে অধিবেশন মুলতবি ঘোষণা করেন স্পিকার। হাতাহাতি না হলেও সারাদিন অচল ছিল রাজ্যসভাও।

বাজেট অধিবেশনের দ্বিতীয় পর্ব গতকাল শুরু হওয়ার পর দিল্লির সহিংসতা নিয়ে তিনটি দাবি সংসদে তোলেন বিরোধী সদস্যরা। কিন্তু সেই নোটিশ মানেননি লোকসভার স্পিকার ও রাজ্যসভার চেয়ারম্যান। এরপর দাবিসংবলিত পোস্টার নিয়ে বিরোধীরা দুই কক্ষের ওয়েলে নেমে আসলে বেলা দুইটা পর্যন্ত উভয় কক্ষের অধিবেশন মুলতবি করা হয়। দুইটার পরও অবস্থা অপরিবর্তিত থাকা এবং ধাক্কাধাক্কির ঘটনায় দিনের মতো সভা মুলতবি করেন স্পিকার।

প্রসিঙ্গত, সংশোধিত নাগরিকত্ব আইন (সিএএ) ও জাতীয় নাগরিকপঞ্জিকে (এনআরসি) কেন্দ্র করে সাম্প্রদায়িক সংঘাতে দিল্লিতে কমপক্ষে ৪৬ জন নিহত ও ৩৫০ জনের বেশি আহত হয়েছে। এ ছাড়া ভাঙচুর, অগ্নিসংযোগ ও হামলা হয়েছে সেখানকার বাড়িঘর, দোকানপাট, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান ও ধর্মীয় স্থাপনাতেও।