advertisement
আপনি দেখছেন

প্রাণঘাতী করোনাভাইরাস সবচেয়ে বেশি ছড়িয়ে পড়া দেশগুলোর একটি ইরান। সরকারিভাবে ৭৭ জনের মৃত্যুর কথা বলা হলেও দেশটির বিরোধীদের দাবি, সংখ্যাটা অনেক বেশি। গতকাল মঙ্গলবার দ্য পিপল’স মুজাহিদিন অরগানাইজেশন অব ইরান (পিএমওআই) জানিয়েছে, এই ভাইরাসে ইরানে অন্তত ১ হাজার ২০০ জনের প্রাণহানি ঘটেছে।

coronavirus iran

পিএমওআই শুধু সংখ্যা বলেই ক্ষান্ত হয়নি, আলাদা করে প্রত্যেক শহরের হিসাব উপস্থাপন করেছে।

তাদের দাবি অনুযায়ী, কওম এলাকায় ৩০০ জন, তেহরানে ২১৫, রাস্টে ৭০, লাইজানে ১২, আসতানেহ ৬, মাশহাদ এলাকায় ৬০, ইসফাহানে ৪৩, কাশানে ২৩ জন, ডাস্টগের্ড এলাকায় ১০ জন, জর্জান এলাকায় ৫৪, ৪৫ জন আরাকে, আরও ৪৫ জন কিরমানশায়, সিরাজে ৩৮, ৩৯ জন কারাজে, খুররামাবাদে ২৩, কাজভিনে ২০, জাহেদানে ১০, ইরানশহর-এ ১৬, বুশেহর-এ ১২ এবং মাজানদার প্রদেশে শতাধিক মানুষ করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন।

এদিকে, প্রাণঘাতী এই ভাইরাসটি যেন কয়েদিনের মধ্যে ছড়িয়ে না পড়ে, সেজন্য ৫৪ হাজার বন্দিকে মুক্তি দিয়েছে ইরান। তবে যেসব বন্দি পাঁচ বছরের বেশি সাজা ভোগ করছেন, তারা আপাতত মুক্তি পাচ্ছেন না। ইরানের বিচার বিভাগের মুখপাত্র গোলাম হুসেইন ইসমাইলি বলেছেন, করোনাভাইরাস পরীক্ষায় যাদের ফলাফল নেগেটিভ এসেছে তাদের সাময়িকভাবে ছেড়ে দেয়া হয়েছে। এখন তারা জামিনে থাকবেন। 

বিশ্বজুড়ে কোভিড-১৯–এ আক্রান্তের সংখ্যা এখন ৯০ হাজারের বেশি। মারা গেছেন ৩ হাজার ১১০ জন। এর বেশির ভাগই চীনের। গত বছরের ডিসেম্বরে চীনের হুবেই প্রদেশের উহান শহর থেকে ভাইরাসটি ছড়ায়। চীনের মূল ভূখণ্ডের বাইরে দক্ষিণ কোরিয়া, ইরান ও ইতালির পরিস্থিতি সবচেয়ে খারাপ।