advertisement
আপনি দেখছেন

সাত সমুদ্র তের নদী পেরিয়ে সুদূর অস্ট্রেলিয়ায় পৌঁছে গেছে করোনাভাইরাস। সেই আতঙ্কে করোনা প্রতিরোধের বিভিন্ন জিনিসপত্র কেনায় ধুম পড়েছে দেশটিতে। এরই প্রেক্ষিতে ইতোমধ্যে দেশটির বৃহত্তম শহর সিডনির সুপারমার্কেটগুলোতে শেষ হয়ে গেছে টয়লেট পেপার।

australia tissu paper

টিবিএস নিউজের প্রতিবেদনে বলা হয়, করোনার সংক্রমণ ঠেকাতে পরিষ্কার-পরিচ্ছন্নতার ওপর বেশি জোর দিচ্ছে অস্ট্রেলিয়া সরকার। প্রশাসনের এমন নির্দেশনার পরই টয়লেট পেপার থেকে শুরু করে মাস্ক, টিস্যু পর্যন্ত কিনে দোকান সাফ করে দিচ্ছেন দেশটির মানুষ।

গতকাল বুধবার সিডনির এক মার্কেটে মুহূর্তের মধ্যে টয়লেট পেপারের তাক খালি হয়ে যায়। এ সময় পণ্যটি কেনাকে কেন্দ্র করে এক ব্যক্তি পকেট থেকে কাঁচি বের করে তেড়ে আসে। পরে পুলিশ এসে পরিস্থতি নিয়ন্ত্রণে নিয়ে আসে।

শহরটিতে পণ্যটি কেনার ধুম এত বেশি পড়েছে যে, একজন ক্রেতা কিংবা একটি পরিবারের কাছে চারটির বেশি প্যাকেট বিক্রি করছে না প্রশাসন। গত ৪৮ ঘণ্টায় বিভিন্ন মার্কেট থেকে বেশ কয়েকবার টয়লেট পেপারের কেস চুরির ঘটনাও ঘটেছে।

australia tissu paper1

এ ব্যাপারে সিডনি বিশ্ববিদ্যালয়ের ভোক্তা বিশেষজ্ঞ ডা. রোহান মিলার বলেন, করোনাভাইরাসের সংক্রমণ পরিস্থিতি কোনদিকে যাবে তা মানুষ জানে না। তাই সতর্কতার জন্য আগাম প্রস্তুতি হিসেবে প্রয়োজনীয় জিনিসপত্র মজুদ করে রাখছে।

তাছাড়া অস্ট্রেলিয়ার মানুষ সংকট ও অভাবের জন্য অভ্যস্ত নয়। প্রতিটি প্রয়োজনীয় জিনিস মুহূর্তের মধ্যে পেয়ে অভ্যস্ত হয়ে গেছে তারা। তাই এমন সতর্কতা, যোগ করেন এই বিশেষজ্ঞ।