advertisement
আপনি দেখছেন

পাঁচ হাজার বন্দি তালেবনাকে কারাগার থেকে মুক্তির ফরমান জারি করলেন আফগানিস্তানের প্রেসিডেন্ট আশরাফ ঘানি। এক নির্দেশে তিনি বলেন, এ পদক্ষেপের ফলে দেশে সহিংসতা কমে যাবে এবং জনগণ এর সুফল ভোগ করা শুরু করবে। আগামী শনিবার থেকে দিনে ১০০ তালেবান সদস্য কারাগার থেকে শর্তসাপেক্ষে মুক্তি পাবে। যদিও প্রথমে তারা বলেছিল, তালেবানদের মুক্তির ব্যাপারে কোনো চুক্তি হয়নি।

taliban prisoners

ওই নির্দেশে ঘানি বলেন, আফগান সরকার পাঁচ হাজার তালেবান বন্দিদের কারাগার থেকে মুক্তি দেয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। প্রথম দফায় দেড় হাজার বন্দিকে মুক্তি দেয়া হবে। শনিবার থেকে শুরু হওয়া এ প্রক্রিয়ায় প্রতিদিন ১০০ জন করে মুক্তি পাবেন। বয়োবৃদ্ধ তালেবান সদস্য ও যাদের সাজার মেয়াদ শেষ হয়েছে তাদের মুক্তি দেয়া হবে আগে। তবে তাদের মুক্তি দেয়া হবে শর্তসাপেক্ষে। মুক্তি পেয়ে আবার যুদ্ধে যোগ না দেয়ার শর্তে তাদের মুক্তি দেয়া হবে। বাকি সাড়ে তিন হাজার বন্দিকে মুক্তি দেয়া হবে তালেবানদের সঙ্গে সরকারের বৈঠকের পর।

আফগান প্রেসিডেন্টের এ সিদ্ধান্তকে স্বাগত জানিয়েছেন যুক্তরাষ্ট্রের আফগান বিষয়ক বিশেষ দূত জালমে খলিলজাদ। একই সঙ্গে তিনি আফগান সরকার ও তালেবানকে আলোচনা করার তাগিদও দিয়েছেন।

পাঁচ হাজার বন্দির মুক্তির বিষয়ে তালেবান মুখপাত্র সোহেল শাহিন মঙ্গলবার টুইটে বলেন, এ সিদ্ধান্তকে তালেবান স্বাগত জানিয়েছে। তবে কোনো প্রতারণা মেনে নেয়া হবে না। কারণ যাদের মুক্তি দেওয়া হবে তাদের একটি তালিকা যুক্তরাষ্ট্রের কাছে ইতোমধ্যে পাঠিয়ে দিয়েছেন তারা।

উল্লেখ্য, গত ২৯ ফেব্রুয়ারি কাতারের রাজধানী দোহায় আফগানিস্তান থেকে মার্কিন সেনা প্রত্যাহার ও ওই অঞ্চলে শান্তি ফিরিয়ে আনতে ঐতিহাসিক একটি চুক্তিতে স্বাক্ষর করে তালেবান ও যুক্তরাষ্ট্র। তবে আফগান সরকার ওই চুক্তি স্বাক্ষর অনুষ্ঠানে অংশ নেয়নি।

চুক্তিতে তালেবান বন্দিদের মুক্তির বিষয়টি উল্লেখ থাকলেও তা নাকচ করে দেয় আফগান সরকার। তাদের পক্ষ থেকে বলা হয়, তালেবান বন্দিদের মুক্তির বিষয়ে কোনো চুক্তি করেনি সরকার। কিন্তু সে সিদ্ধান্ত থেকে সরে এসে তালেবানদের পাঁচ হাজার সদস্যকে মুক্তি দেয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন আফগান প্রেসিডেন্ট।

বিভিন্ন সূত্র বলছে, যুক্তরাষ্ট্রের চাপে তালেবান বন্দিদের মুক্তি দিতে যাচ্ছে ঘানি সরকার।

sheikh mujib 2020