advertisement
আপনি দেখছেন

চীনের বাইরে বিশ্বের ১৩২টি দেশে ছড়িয়ে পড়া প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসে (কোভিড-১৯) আক্রান্ত হয়ে স্পেনে একরাতে নতুন করে ৫৩ জনের মৃত্যু হয়েছে। এতে দেশটিতে মৃত্যুর সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১২০ জনে। সংক্রমিত হয়েছেন আরো ৪ হাজার ২০৯ জন। এমন পরিস্থিতিতে ‘জরুরি রাষ্ট্রীয় সতর্কতা' (স্টেট অব এলার্ট) জারি করেছে দেশটির সরকার।

corona virus in spain

শুক্রবার স্পেনের সংবাদমাধ্যমগুলোতে বলা হয়, চীনের হুবেই প্রদেশের উহান শহর থেকে ছড়িয়ে পড়া করোনাভাইরাসে সারাবিশ্বে অশঙ্কাজনক হারে মৃত্যু ও আক্রান্তের সংখ্যা বৃদ্ধি পাচ্ছে। তাই স্পেনে জরুরি অবস্থার তিন ধাপের প্রথম ধাপ 'জরুরি রাষ্ট্রীয় সতর্কতা' বা স্টেট অব এলার্ট জারি করেছে সরকার।

প্রতিবেদনে আরো বলা হয়, এই জরুরি রাষ্ট্রীয় সতর্কতা আগামী ১৫ দিন পর্যন্ত জারি থাকবে। এ সময়ের মধ্যে সরকার করোনাভাইরাস প্রতিরোধে এবং জনগণের কল্যাণে যেকোনো ধরনের পদক্ষেপ গ্রহণ করতে পারে। এমনকি প্রয়োজনে জনগণকে নিজের বাড়িঘর ছেড়ে অন্যত্র নিরাপদ স্থানে চলে যাওয়ারও নির্দেশ দিতে পারে।

দেশটির গণমাধ্যমগুলোতে আরো বলা হয়, প্রাণঘাতী এ ভাইরাসের বিস্তার ঠেকাতে রাজধানী মাদ্রিদে সকল ধরনের দোকান-পাট, রেস্তোরাঁ, পানশালা বন্ধ করে দেওয়া হতে পারে। শুধু জীবন ধারণের প্রয়োজনীয় জিনিসপত্র ক্রয়ের জন্য সুপারশপ এবং ওষুধ দোকানগুলোই খোলা রাখা হবে।

এ বিষয়ে টিভিই নামের একটি গণমাধ্যমে বলা হয়, আগামীকাল শনিবার থেকেই সরকার এ পদক্ষেপ নিতে পারে। তবে তাৎক্ষণিকভাবে এ বিষয়ে নিশ্চিতভাবে কিছু বলতে পারেনি দেশটির আঞ্চলিক কর্তৃপক্ষ।