advertisement
আপনি দেখছেন

করোনাভাইরাসের উৎপত্তিস্থল চীনে কমে এসেছে আক্রান্ত ও মৃতের সংখ্যা। কিন্তু বাড়ছে ইউরোপের দেশগুলোতে। আর এ কারণে ইউরোপকে এখন করোনাভাইরাস মহামারির কেন্দ্রস্থল হিসেবে ঘোষণা করেছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিউএইচও)।

covid 19 virus image

সংস্থাটির প্রধান টেড্রস অ্যাডানম গেব্রিয়াসিস গতকাল শুক্রবার বলেন, ইউরোপের দেশগুলো মহামারিতে রূপ নেয়া ভাইরাসটির কেন্দ্রস্থলে পরিণত হয়েছে। বিশ্বব্যাপী এখন পর্যন্ত এ মহামারিতে প্রায় সাড়ে পাঁচ হাজার মানুষ মারা গেছে। বিষয়টি অত্যন্ত দুঃখজনক।

প্রসঙ্গত, ভাইরাসটি এখন পর্যন্ত বিশ্বের ১৩২টি ছড়িয়ে পড়েছে। সবমিলিয়ে এখন পর্যন্ত সারা পৃথিবীতে মৃত্যুবরণ করেছেন ৫৪৪০ জন। আক্রান্ত হয়েছেন ১ লাখ ৩৯ হাজার ৬৩৭ জন এবং চিকিৎসা শেষে সুস্থ হয়ে ফিরে এসেছেন ৭০ হাজার ৭৩৩ জন। 

এদিকে, করোনাভাইরাসের এই প্রকোপ ঠেকাতে দিশেহারা ইতালি সরকার। আক্রান্তের সংখ্যা বাড়তে থাকায় দেশটির প্রধানমন্ত্রী দিনকয়েক আগে পুরো দেশকেই রেডজোনের আওতাভুক্ত ঘোষণা করেন। ওই ঘোষণার পর কার্যত গৃহবন্দী হয়ে গেছেন দেশটির ৬ কোটি মানুষ।

গত ২৪ ঘণ্টায় দেশটিতে মারা গেছে ২৫০ জন। এখন পর্যন্ত একদিনে করোনায় মারা যাওয়া সর্বোচ্চ রেকর্ড এটি। ইতালিতে এখন পর্যন্ত মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১২৬৬ জনে। সেইসঙ্গে আক্রান্তের সংখ্যা ছাড়িয়েছে ১৭ হাজার। এছাড়া চিকিৎসা শেষে ১৪৩৯ জন আক্রান্ত ব্যক্তি সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন বলে জানিয়েছে দেশটির স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়।

তবে ইতালিতে প্রকোপ বাড়লেও করোনাভাইরাসের উৎস দেশ চীন আস্তে আস্তে স্বাভাবিকের দিকে ফিরছে। গতকাল চীনে নতুন করে আক্রান্ত হয়েছেন ১১ জন। মারা গেছেন আরও ১৩ জন।