advertisement
আপনি দেখছেন

করোনাভাইরাসের পরিস্থিতি নিয়ে বিশ্বখ্যাত আন্তর্জাতিক গণমাধ্যম নিউইয়র্ক টাইমস, বিবিসি ও সিএনএনে প্রকাশিত খবরে তুরস্কের ইস্তাম্বুলের ছবি প্রকাশ করা হয়েছে। এ কারণে তুরস্কের যোগাযোগ বিভাগের মহাপরিচালক ফাহরেতিন আলতুন গণমাধ্যম তিনটিকে এ বিষয়ে রোববার একটি চিঠি পাঠিয়েছেন।

turkey complain about nytনিউইয়র্ক টাইমসের প্রচ্ছদের তুরস্কের ইস্তাম্বুলের ছবি

চিঠিতে তিনি বলেন, নিঃসন্দেহে ভাইরাসটি বিশ্বব্যাপী একটি আতঙ্ক তৈরি করেছে। মারা গেছেন অসংখ্য মানুষ। কিন্তু পরিস্থিতি নিয়ে বিবিসি, সিএনএন ও নিউইয়র্ক টাইমস মানুষকে ভুল তথ্য দিচ্ছে। এর কারণ প্রকাশিত খবরে তারা যে ছবি ব্যবহার তার কোনো ভিত্তি নেই। এ রকম পাঁচটি প্রমাণ আমাদের কাছে আছে।

ইয়েনি সাফাকের প্রতিবেদনে বলা হয়, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র ইউরোপে ভ্রমণে নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে। ইতালি, ফ্রান্স ও স্পেনে করোনার প্রভাব ছড়িয়ে পড়ায় ওই নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা হয়। কিন্তু নিউইয়র্ক টাইমস তাদের প্রতিবেদনে ব্যবহার করেছে ইস্তাবুলের ছবি। এই ছবি ব্যবহার করে তারা বুঝাতে চেয়েছে যে, তুরস্কের পরিস্থিতি ভয়াবহ। অন্যদিকে বিবিসিও কানাডার প্রধানমন্ত্রী জাস্টিন ট্রুডোর ও তার স্ত্রীর কোয়ারেন্টাইন নিয়ে করা নিউজে তুরস্কের ছবি ব্যবহার করেছে। বিষয়টি হতাশাজনক বলে চিঠিতে উল্লেখ করা হয়েছে।

fahrettin altunতুরস্কের যোগাযোগ বিভাগের মহাপরিচালক ফাহরেতিন আলতুন

প্রতিবেদনে আরো বলা হয়, অস্ট্রেলিয়ায় ফর্মুলা ওয়ান রেস প্রতিযোগিতা বন্ধ হয়েছে করোনার কারণে। কিন্তু সিএনএন সেই প্রতিবেদনে ইস্তানবুলে অবস্থিত ক্যাপিটাল কমপ্লেক্সের ছবি ব্যবহার করেছে। এসব করে তারা বিশ্বের মানুষের কাছে ভুল তথ্য উপস্থাপন করছে বলে দাবি করেন তুরস্কের ওই কর্মকর্তা।

তুর্কি গণমাধ্যমটি বলছে, দেশটিতে এখন পর্যন্ত ছয়জনের দেহে করোনাভাইরাসের উপস্থিতি পাওয়া গেছে। তবে কেউ মারা যায়নি। তাছাড়া শুরু থেকেই করোনা মোকাবেলায় সিরিয়াস আঙ্কারা।

sheikh mujib 2020