advertisement
আপনি দেখছেন

চীনে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ থেকে যারা সুস্থ হয়েছেন তাদের মধ্যে ১৪ শতাংশ আবারো ভাইরাসটিতে আক্রান্ত হয়েছেন। এমনই এক তথ্য প্রকাশ করেছেন চীনা স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞরা। খবর ডেইলি মেইল।

chin corona kitআক্রান্ত রোগীর দেহে করোনার উপস্থিতি শনাক্ত করা হচ্ছে

এক গবেষণায় দেখা গেছে, চীনের বিভিন্ন হাসপাতালে যারা চিকিৎসা শেষে ভাইরাসমুক্ত হয়ে সাধারণ জীবনে ফিরে গেছেন, স্থান ভেদে তাদের মধ্য থেকে ১৪ শতাংশ আবারো করোনাভাইরাসে সংক্রমিত হয়েছেন। গবেষকরা ধারণা করছেন, এর কারণে চীনে দ্বিতীয় দফায় ভাইরাসটি তাণ্ডব চালাতে পারে।

গবেষণাটি ঠিক তখন প্রকাশ করা হলো যখন হুবেই প্রদেশ থেকে লকডাউন তুলে নেয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে চীনা প্রশাসন। গত দুই মাস ধরে করোনার কেন্দ্রবিন্দু হুবেই প্রদেশ লকডাউনে আছে। এই পদক্ষেপের মাধ্যমে ভাইরাসের প্রাদুর্ভাব উল্লেখযোগ্য হারে কমে আসলেও আক্রান্তদের দ্বিতীয়বার সংক্রমিত হওয়ার ঘটনায় নতুন আশঙ্কা উঁকি দিচ্ছে।

উহানের এক হাসপাতাল থেকে সুস্থ হওয়া ১৪৭ জনের ওপর পরিচালিত এক গবেষণায় দেখা গেছে, তাদের মধ্যে দ্বিতীয়বার পাঁচজন আক্রান্ত হয়েছেন। ওই পাঁচজন থেকে আরো ৩০ জনের মতো আক্রান্ত হয়েছেন।

china coronavirus death recordহাসপাতাল থেকে বের হচ্ছেন চীনের দুই চিকিৎসক

গুয়াংডং প্রদেশের রোগ নিয়ন্ত্রণ ও প্রতিরোধ কেন্দ্রের উপ-পরিচালক বলেন, এখানে সুস্থদের মধ্যে ১৪ শতাংশ ফের আক্রান্ত হয়েছেন। তাদের চিহ্নিত করার আগেই অনেকের সঙ্গে সংস্পর্শে গিয়ে সংক্রমণের সংখ্যা বেড়ে গেছে।

দ্বিতীয়বার আক্রান্ত হওয়া প্রসঙ্গে চীনের মেডিকেল বিশেষজ্ঞরা বলছেন, একটি বড় কারণ হতে পারে অনেক সময় করোনা শনাক্তকরণ কিট ঠিকমতো কাজ করে না। কারণ যেসব কিট ব্যবহৃত হচ্ছে সেসব কিটের শনাক্তকরণ নিশ্চয়তা ৩০ থেকে ৫০ শতাংশ। তাই অনেক সময় আক্রান্ত থাকার পরও কিটে ফলাফল নেগেটিভ আসে। আর চিকিৎসকরা ভাবেন, রোগী সুস্থ হয়ে গেছেন। পরে তাদের হাসপাতাল থেকে ছাড়পত্র দেয়ার পর দেখা যায় তারা আক্রান্ত।