advertisement
আপনি দেখছেন

প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসের (কোভিড-১৯) আতঙ্কে দিশেহারা গোটা বিশ্ব। সংক্রমণ এড়াতে মানুষকে ঘরে থাকার পরামর্শ দিচ্ছে বিশেষজ্ঞ থেকে শুরু করে প্রতিটি দেশের সরকার। এর প্রভাব পড়েছে বিশ্ব অর্থনীতিতেও। কাজ হারাচ্ছেন অনেকে। ইতোমধ্যে বেকারত্ব ভাতার জন্য আবেদন করেছেন প্রায় এক কোটি মার্কিন নাগরিক।

lockdown in usকরোনাভাইরাসের বিস্তার মোকাবেলায় লকডাউনে যুক্তরাষ্ট্র

বৃহস্পতিবার দেশটির শ্রমবাজার জানায়, গত সপ্তাহে সরকারের কাছে বেকারত্ব ভাতার জন্য আবেদন করেছেন ৬৬ লাখের বেশি মার্কিন নাগরিক। এর আগের সপ্তাহে আবেদন করেছেন ৩৩ লাখের মতো। ফলে সব মিলিয়ে এখন পর্যন্ত প্রায় এক কোটি মানুষ বেকারত্ব ভাতার জন্য আবেদন করেছেন।

সাধারণত চাকরি থেকে ছাঁটাইয়ের পর সরকারের কাছে বেকারত্ব ভাতার জন্য আবেদন করে থাকনে দেশটির নাগরিকরা। অর্থাৎ, ধরে নেয়া যায়, করোনাভাইরাসের কারণে দেশটিতে প্রায় এক কোটি মানুষ চাকরি হারিয়ে বেকার হয়েছেন।

us labour department twietমার্কিন নাগরিকদের বেকারত্বের আবেদন নিয়ে যুক্তরাষ্ট্রের শ্রমবাজারের টুইট

যুক্তরাষ্ট্রে কোভিড-১৯ ভাইরাসের প্রাদুর্ভাবের পর দেশটির প্রায় দুই-তৃতীয়াংশ নাগরিককে ঘরে থাকার নির্দেশ দিয়েছে মার্কিন সরকার। এমতাবস্থায় বহু কর্মীদের ছাঁটাই করছে হোটেল, রেস্তোরাঁ, সিনেমা হলসহ বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান।

এভাবে চলতে থাকলে এপ্রিলের শেষ নাগাদ দেশটিতে প্রায় দুই কোটি মানুষ বেকার হতে পারে বলে আশঙ্কা করছেন অর্থনীতিবিদরা।

বিশ্বের ২০৩টি দেশে ছড়িয়ে পড়া প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসে এখন পর্যন্ত সবচেয়ে বেশি মানুষ আক্রান্ত হয়েছে যুক্তরাষ্ট্রে। দেশটিতে মোট আক্রান্তের সংখ্যা ২ লাখ ৪৫ হাজার ৪৪২ জন। এর মধ্যে মারা গেছেন ৬ হাজার ৯৮ জন। চিকিৎসা শেষে সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরে গেছেন ১০ হাজার ৪১১ জন। ভাইরাসের প্রভাব কমাতে গত সপ্তাহে ২ দশমিক ২ ট্রিলিয়ন ডলার আর্থিক প্রণোদনা ঘোষণা করেছে মার্কিন সরকার।