advertisement
আপনি দেখছেন

উন্নত দেশগুলো নানা পদক্ষেপের মাধ্যমে করোনাভাইরাসকে ঠেকানোর চেষ্টা করে যাচ্ছে। কিন্তু একই মাত্রার সংক্রমণ যদি অনুন্নত বিশ্ব, বিশেষকরে যুদ্ধবিধ্বস্ত দেশগুলোতে ছড়িয়ে পড়ে তাহলে পরিস্থিতি হবে ভয়ংকরতম। কারণ করোনাভাইরাসকে প্রতিরোধ করার নূন্যতম সক্ষমতা দেশগুলোর নেই। এখনই যদি তাদের দিকে সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দেওয়া না হয় তবে সংক্রমণ কোনোভাবেই ঠেকানো যাবে না। ফলশ্রুতিতে বিশ্বব্যাপী প্রায় বিনা চিকিৎসায় মারা পড়তে পারে ৩০ লাখ মানুষ! এমন হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করেছে দাতব্য সংস্থা ইন্টারন্যাশনাল রেসকিউ কমিটি (আইআরসি)।

int rescue comm

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা এবং লন্ডনের ইম্পেরিয়াল কলেজের তথ্য ও মডেলকে সামনে রেখে এ সংক্রান্ত একটি প্রতিবেদন তৈরি করেছে ইন্টারন্যাশনাল রেসকিউ কমিটি। গতকাল প্রকাশিত সেই প্রতিবেদনের ভিত্তিতে খবর প্রকাশ করেছে বিবিসি। আইআরসি তাদের প্রতিবেদনে সিরিয়া ও আফগানিস্তনের কথা উল্লেখ করে বলেছে, এমন দেশগুলো না পারছে করোনা মোকাবেলা করতে না পারছে নাগরিকদের মুখে খাবার তুলে দিতে। পরিস্থিতি যদি এমনই থাকে তবে ১০০ কোটি আক্রান্তের পাশাপাশি মারা যাবে অন্তত ৩০ লাখ মানুষ।

আইআরসির প্রধান ডেভিড মিলিব্যান্ড বলেন, উন্নত দেশগুলোতে অপ্রতিরোধ্য গতিতে এগিয়ে চলছে করোনাভাইরাস। পাশাপাশি তারা নানা পদক্ষেপও নিচ্ছে। কিন্তু অনুন্নত বিশ্বে স্বাস্থ্যসেবার সক্ষমতা তুলনামূলকভাবে অনেক কম। উপরন্তু বাড়িঘরের ঘনত্ব অনেক বেশি এবং মানুষও সচেতন নয়। করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হলে অধিকাংশেরই হাসপাতালে নেওয়ার সামর্থ্য নেই। অথচ উন্নত দেশগুলো নিজেদের দেশে করোনা মোকবেলায় পদক্ষেপ নিলেও এসব দেশের বিষয়ে কেউ ভাবছে না।

আন্তর্জাতিক জরিপ পর্যালোচনাকারী সংস্থা ওয়ার্ল্ডওমিটারের সবশেষ তথ্য মতে, বিশ্বব্যাপী করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন ৩১ লাখ ৩৮ হাজার ৫২৩ জন। মৃত্যুবরণ করেছেন ২ লাখ ১৭ হাজার ৯৯১ জন। সুস্থ হয়ে উঠেছেন ৯ লাখ ৫৫ হাজার ৯২৪ জন। সংকটাপন্ন আছেন প্রায় ৫৭ হাজার মানুষ।

sheikh mujib 2020