advertisement
আপনি দেখছেন

সৌদি আরবে ধীরে ধীরে নিয়ন্ত্রণে আসছে মহামারি করোনাভাইরাস। ফলে নির্দিষ্ট কিছু অঞ্চলে লকডাউন শিথিল করা হয়েছে। আজ বুধবার খুলে দেওয়া হয়েছে শপিং মল। সবচেয়ে বড় সুসংবাদ হল, শিগগিরই খুলে দেওয়া হচ্ছে মসজিদুল হারাম ও মসজিদে নববির দরজা। গতকাল মঙ্গলবার এ তথ্য জানিয়েছেন মক্কা ও মদিনাবিষয়ক অধিদফতরের প্রেসিডেন্ট এবং মসজিদে হারামের খতিব ড. আবদুর রহমান সুদাইস।

makka haramমক্কায় অবস্থিত মসজিদে হারাম

সৌদি আরবে করোনার প্রকোপ বাড়তে থাকায় মুসলমানদের কাছে সবচেয়ে সম্মানের এই দুই মসজিদে নামাজ আদায় বন্ধ করে দেওয়া হয়। রমজানের শুরু থেকে সীমিত পরিসরে জামায়ত চালু করলেও সেখানে কোনো সাধারণ মুসল্লির উপস্থিতি নিষিদ্ধ করা হয়েছিল। এতে করে সম্পূর্ণ স্থবির হয়ে পড়ে মসজিদে হারাম ও আশপাশের এলাকা।

এই পরিস্থিতিতে গতকাল এক ভিডিও বার্তায় সুসংবাদ নিয়ে হাজির হন ড. সুদাইস। তিনি বলেন, মসজিদুল হারাম ও মসজিদে নববি বন্ধ থাকার কারণে বিশ্ব মুসলমানের হৃদয়ে যে রক্তক্ষরণ হচ্ছে তা আমরা উপলব্ধি করতে পারছি। আমি সুসংবাদ দিতে চাই, শিগরিরই আপনারা এই দুই মসজিদকে আবার প্রাণবন্ত অবস্থায় দেখতে পাবেন।

madina sarifমদিনায় অবস্থিত মসজিদে নববি

শাইখ সুদাইস আরো বলেন, ইনশাআল্লাহ দ্রুতই উম্মাহর মাথার ওপর থেকে করোনাভাইরাস নামক কালো মেঘ সরে যাবে। আমরা আবার মসজিদে হারামের চারপাশে তাওয়াফ ও সাঈ করত পারবো এবং মহানবী (সা.) এর রওজায় গিয়ে তাকে সালাম দিতে পারবো। তবে ঘোষণার আগে সাধারণ মুসল্লিদেরকে অতি উৎসাহী হয়ে কিছু না করার অনুরোধ করেন বিশ্বের অন্যতম বিখ্যাত এই ইসলামিক স্কলার।

সৌদি আরবে এখন পর্যন্ত করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন ২০ হাজার ৭৭ জন। মৃত্যু সেই তুলনায় অনেক কম, মাত্র ১৫২ জন মারা গেছেন দেশটিতে। সুস্থ হয়ে উঠেছেন ২ হাজার ৭৮৪ জন। ১১৮ জনের অবস্থা সংকটাপন্ন।

sheikh mujib 2020