advertisement
আপনি দেখছেন

পশ্চিম তীরে ইসরায়েল নিজের অধ্যুষিত এলাকার বাইরে ফিলিস্তিনির দখলে থাকা বিভিন্ন অঞ্চল দখলের পরিকল্পনা করেছে। সেই পরিকল্পনাকে প্রত্যাখ্যান করলো সৌদি আরব। গতকাল বৃহস্পতিবার দেশটির পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় এ সংক্রান্ত এক বিবৃতিতে এ তথ্য জানায়।

saudi arabiya and israeli flagপ্রতীকী ছবি

এতে বলা হয়, ইসরায়েলের এই সিদ্ধান্ত একতরফা এবং এটি আন্তর্জাতিক আইনের পরিপন্থী। এ রকম কিছু হলে ওই অঞ্চলে অশান্তি বেড়ে যাবে। শান্তি ফিরিয়ে আনার যে প্রচেষ্টা চলছে তা মুখ থুবড়ে পড়বে।

বিবৃতিতে বলা হয়, ভূমি দখলের জন্য ইসরায়েলের পরিকল্পনা প্রত্যাখ্যান করলো সৌদি আরব। কারণ রিয়াদ সব সময় ফিলিস্তিনিকে সমর্থন করে এসেছে। সেই অঞ্চলে ফিলিস্তিনিদের সার্বভৌম একটি রাষ্ট্র প্রতিষ্ঠার অধিকার সবসময়েই অগ্রাধিকার পাবে।

পশ্চিম তীরে ইসরায়েল কর্তৃক ভূমি দখলের কথা হচ্ছে- সেখানে নতুন সরকার গঠন হওয়ার পর থেকেই। পরিকল্পনা অনুযায়ী জর্ডান সীমান্তের কাছাকাছি অঞ্চল ও পশ্চিম তীরে ইহুদী অধ্যুষিত অঞ্চলগুলো নিয়ে নিতে চায় তারা।

এর প্রেক্ষিতে ফিলিস্তিনের প্রেসিডেন্ট মাহমুদ আব্বাস বলেন, যুক্তরাষ্ট্র ও ইসরায়েলের সঙ্গে আমাদের যে কয়টি চুক্তি হয়েছে তার সবগুলো প্রত্যাখ্যান করবো আমরা। এ বিষয়ে আমরা অন্যান্য রাষ্ট্রকেও জানিয়ে দিয়েছি।

ইসরায়েলের এই পদক্ষেপের মধ্যপ্রাচ্যের অনেক রাষ্ট্রই নিন্দা জানিয়েছে। তাদের মতে, এই পদক্ষেপ সব শান্তি প্রক্রিয়াকে ব্যাহত করে দিতে পারে।