advertisement
আপনি দেখছেন

দেখতে দেখতে ভারতের রাজধানী দিল্লির আকাশে পৌঁছে গেছে পঙ্গপালের ঝাঁক। সাম্প্রতিক সময়ে দেশটির অন্যান্য অঙ্গরাজ্যে এর উপস্থিতি দেখা যায়। সর্বশেষ দেশটির রাজস্থান রাজ্যে ঝাঁকে ঝাঁকে পঙ্গপাল দেখা গেছে। এবার সেই পঙ্গপালের ঝাঁক গতকাল শনিবার দিল্লির পার্শ্ববর্তী গুরগাঁও এলাকার ওপর দিয়ে উড়ে যায়। তবে গুরগাঁও কিংবা দিল্লিতে পঙ্গপালের ঝাঁক কোনো ক্ষতি করেনি। পঙ্গপালের এ দল উত্তরপ্রদেশে ফসলের ক্ষতি করতে পারে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

locusts delhi india homeদিল্লির আকাশে পঙ্গপাল

জানা গেছে, গতকাল শনিবার বেলা ১১টার পর পঙ্গপালের ওই ঝাঁক গুরুগাঁওয়ের আকাশ দিয়ে উড়ে যায়। এ সময় স্থানীয়রা আতঙ্কে ঘরের দরজা-জানালা বন্ধ করে দেন। আবার অনেকে ছবিও তোলেন।

গুরুগাঁওয়ের বাসিন্দা জয় ভট্টাচার্য গণমাধ্যমকে বলছেন, তারা দুই বন্ধু গল্প করছিলেন। হঠাৎ তিনি একটানা ঝিঁঝি পোকার ডাকের মতো- অথচ কয়েক শ গুণ জোরালো শব্দ শুনতে পান। তার পর জানালা দিয়ে তাকিয়ে দেখেন, হাজার হাজার পঙ্গপাল তার জানালার বাইরেই। তাড়াতাড়ি জানালা-দরজা বন্ধ করে দেই, কারণ ঘরে ঢুকতে পারলে কী করবে সেটা ভালো করেই জানা। এর পর তিনি বন্ধুকেও বলেন, দেখ আমাদের এখানে পঙ্গপাল হানা দিয়েছে। ওই বন্ধুও গুরগাঁওতেই থাকেন।

locusts delhi india innerদিল্লির আকাশে পঙ্গপাল

তিনি বলেন, এর পর যখন আমি ছবি তুলতে শুরু করি, দেখি আকাশে যেন হলুদ রঙের মেঘ ছেয়ে গেছে। আর ওই একটানা শব্দ। ক্যামেরার লেন্সে কারও আঙ্গুলের ছাপ পড়লে যে রকম আবছা হয়ে যায়, ব্যাপারটা ছিল সে রকম।

তবে পুরো গুরগাঁওয়ের মানুষ পঙ্গপাল উড়ে যাওয়ার এই দৃশ্য দেখতে পাননি। কারণ একটি নির্দিষ্ট এলাকা দিয়ে সেগুলো উড়ে যায়। তবে যারা দেখতে পেয়েছেন, তাদের মধ্যে অনেকেই পঙ্গপালের ওই দৃশ্যে ছবি তুলেছেন এবং তা সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে শেয়ার করেছেন।

এ বিষয়ে ভারতের পশ্চিমবঙ্গের কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়ের পতঙ্গবিজ্ঞানের অধ্যাপক অম্লান দাস বলছেন, পঙ্গপালের এই হানাকে প্লেগ বলা হয়। মধ্যপ্রাচ্য থেকে পাকিস্তান হয়ে কয়েক দশক পর পর এগুলো আসে এবং প্রথমে রাজস্থানে ঢোকে। গুরগাঁও ও দিল্লি এই অঞ্চল পঙ্গপালগুলো যাবে- গত কয়েক দিন ধরেই এ রকম খবর পাওয়া যাচ্ছিল।

locusts foodপঙ্গপাল

তিনি বলেন, মূলত ভূট্টা, গম, ধানের মতো ফসল খেতে ভালবাসে পঙ্গপালের দল। সেইসঙ্গে এদের টিকে থাকার জন্য উষ্ণ ও আর্দ্র অঞ্চলও দরকার। একটা প্যাটার্ন দেখলে বোঝা যায়, দিল্লির পর এরা গঙ্গা অববাহিকা অঞ্চল অর্থাৎ উত্তরপ্রদেশ ও বিহার হয়ে পশ্চিমবঙ্গ পর্যন্ত আসতে পারে।

তবে পশ্চিমবঙ্গ পর্যন্ত আসতে এরা জীবিত নাও থাকতে পারে। কারণ পঙ্গপাল ডানা গজানোর পর গড়ে ৩৬ থেকে ৪০ দিন বাঁচে। পঙ্গপাল গড়ে প্রতিদিন ১০০ কিলোমিটারের মতো উড়তে পারে। তাছাড়া দিনের আলোতেই কেবল উড়তে পারে এরা। আর সেই হিসাব করলে আরো ১৫ দিন লাগতে পারে পশ্চিমবঙ্গে পৌঁছাতে। সে কারণে এ পর্যন্ত আসার আগেই হয়তো তাদের আয়ু শেষ হয়ে যাবে।

sheikh mujib 2020