advertisement
আপনি দেখছেন

স্বাধীনতার ৭৩ বছর ধরে পাকিস্তানের রাজধানী ইসলামাবাদে কোনো মন্দির ছিল না। ফলে সেখানে বসবাসরত হিন্দুরা এতদিন সামাজিকভাবে উপাসনা করতে পারতো না। তাদের উপাসনার একমাত্র জায়গা ছিল নিজেদের বাড়ি। অবশেষে মন্দির নির্মাণের অনুমতি দিয়েছে পাকিস্তান সরকার।

islamabad temple

আজ সোমবার হিন্দুস্থান টাইমসের প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়েছে। সেখানে বলা হয়, ইসলামাবাদের এইচ-৯ এলাকার ২০ হাজার বর্গফুট এলাকাজুড়ে মন্দির নির্মাণের অনুমতি দিয়েছে পাকিস্তান সরকার। এটি নির্মাণে প্রাথমিকভাবে ব্যয় ধরা হয়েছে ১০ কোটি টাকা।

এ বিষয়ে পাকিস্তানের মানবাধিকার বিষয়ক সংসদীয় সচিব লালচাঁদ মালহি বলেন, ১৯৪৭ সালের স্বাধীনতার আগে পাকিস্তানে অসংখ্য মন্দির ছিল। ইসলামাবাদ এবং আশপাশের এলাকায় একাধিক মন্দিরের কাঠামো এখনো রয়েছে। সায়েদপুর গ্রাম এবং রাওয়াল লেকের কাছে কোরাঙ্গ নদীর ওপর হিল পয়েন্টেও এমন কাঠামো রয়েছে। কিন্তু দীর্ঘদিন ধরে সেগুলো অব্যাবহৃত অবস্থায় পড়ে আছে।

বার্তা সংস্থা পিটিআইয়ের খবরে বলা হয়, মন্দির নির্মাণের খরচ পাকিস্তান সরকার বহন করবে। তথ্যটি জানিয়েছেন দেশটির ধর্ম বিষয়ক মন্ত্রী পীর নুরুল হক কাদরি।

sheikh mujib 2020