advertisement
আপনি দেখছেন

বিশ্বে তৈরি হতে যাওয়া প্রায় সব রেমডিসিভির কিনে নিয়েছে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের প্রশাসন। এটি বর্তমান দুনিয়া কাঁপিয়ে দেওয়া মহামারি করোনাভাইরাসের বিরুদ্ধে কিছুটা কার্যকর প্রমাণ হওয়ায় এ পদক্ষেপ নিলো ট্রাম্প প্রশাসন।

remdesivir medicineরেমডিসিভির ওষুধ

এর উৎপাদনকারী কোম্পানি যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক গিলিয়াড সায়ন্সেস বলছে, তারা প্রমাণ পেয়েছে যে, এই ওষুধ ব্যবহার করে কোভিড-১৯ থেকে দ্রুত সেরে উঠা যায়।

বিবিসি বলছে, ট্রাম্প প্রশাসন বায়োফার্মাসিউটিক্যাল কোম্পানিটির সঙ্গে চুক্তি করেছে, যার অধীনে প্রায় ৫ লাখ ডোজ রেমডিসিভির কেনা হবে। এর মধ্যে জুলাই মাসে উৎপন্ন হওয়া সব ওষুধ, আগস্টের ৯০ শতাংশ এবং সেপ্টেম্বরের উৎপাদিত ওষুধের ৯০ শতাংশ নেবে আমেরিকা।

রেমডেসিভির ওষুধটির পেটেন্ট গিলিয়াড সায়ন্সেসের। অর্থাৎ ওষুধটি তৈরির অধিকার রয়েছে শুধু তাদেরই। তবে জাতিসংঘের স্বল্পোন্নত দেশের তালিকায় নাম থাকায় আন্তর্জাতিক বাণিজ্য নীতি অনুযায়ী বাংলাদেশের ওপর নিষেধাজ্ঞা নেই। ফলে বাংলাদেশেও ওষুধটি উৎপাদন হচ্ছে।

gilead usaরেমডিসিভিরের উৎপাদনকারী কোম্পানি গিলিয়াড সায়েন্সেস

ইবোলা ভাইরাসে আক্রান্ত রোগীদের জন্য রেমডিসিভির ওষুধটি তৈরি করেছিল গিলিয়াড সায়েন্সেস।

ক্লিনিক্যাল পরীক্ষায় দেখা গেছে, কোভিড-১৯ ও অন্যান্য কিছু ভাইরাস মানুষের দেহে প্রবেশ করে যেভাবে বংশবৃদ্ধি করে এবং রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতাকে ক্ষতিগ্রস্ত করে, তার কিছুটা হলেও থামাতে সক্ষম রেমডিসিভির।

বলা হচ্ছে, রেমডিসিভির ওষুধ প্রয়োগে বেশি অসুস্থ রোগীদের হাসপাতালে থাকার সময় ৪ দিন পর্যন্ত কমানো সম্ভব।

সম্প্রতি গিলিয়াড সায়ন্সেস তাদের গবেষণার ফল প্রকাশ করে জানায়, কোভিড-১৯ রোগীদের চিকিৎসায় তাদের ওষুধটি কার্যকর হতে পারে। এর পরই করোনায় আক্রান্ত রোগীদের জরুরি ব্যবহারের উদ্দেশ্যে রেমডিসিভির ওষুধ ব্যবহারের অনুমোদন দেয় যুক্তরাষ্ট্রের ওষুধ নিয়ন্ত্রণ কর্তৃপক্ষ (এফডিএ)।

sheikh mujib 2020