advertisement
আপনি দেখছেন

করোনাভাইরাসের সংক্রমণ রোধে পাবলিক প্লেসে সকল প্রকার ধূমপান নিষিদ্ধ করেছে জর্ডান। দেশটির স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় এক বিবৃতিতে এ তথ্য জানিয়েছে বলে নিশ্চিত করেছে দ্য নিউ আরব।

electric cigeretteইলেকট্রিক সিগারেটের মাধ্যমে ধূমপান

ওই বিবৃতিতে বলা হয়, করোনাভাইরাসের এই মহামারিতে নাগরিকদের সুস্বাস্থ্যের কথা চিন্তা করে এ সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। এখন থেকে পাবলিক প্লেসে সিগারেট, ইলেকট্রনিক সিগারেট এবং সিসার মাধ্যমে ধূমপান নিষিদ্ধ করা হল। পরবর্তী নির্দেশনা না দেয়া পর্যন্ত এই সিদ্ধান্ত বহাল থাকবে।

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার হিসাব অনুযায়ী, বিশ্বে সবচেয়ে বেশি ধূমপান করে জর্ডানের মানুষ। দেশটিতে বর্তমানে ১ কোটির বেশি মানুষ বিভিন্ন উপায়ে ধূমপান করেন। দেশটিতে প্রতি ১০ জনের ৮ জন পুরুষ ধূমপান করে। গত মাসেই ইন্দোনেশিয়াকে হটিয়ে সর্বোচ্চ ধূমপায়ীর দেশে পরিণত হয়েছে জর্ডান।

jordan people smoking shishaক্যাফেতে বসে সীসা পান করছে জর্ডানের মানুষ

জর্ডানের স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় বলছে, করোনাভাইরাসের এই ক্রান্তিকালে সবচেয়ে ঝুঁকিতে আছে ধূমপায়ীরা। তাদের মধ্যে যাদের নিঃশ্বাসের সঙ্গে দেহে নিকোটিন প্রবেশ করছে তারাও ভাইরাসটিতে আক্রান্ত হওয়ার উচ্চ ঝুঁকিতে রয়েছে। এসব মানুষ আক্রান্ত হলে দেহে তীব্র প্রতিক্রিয়া দেখা দেয়।

দেশটিতে এখন পর্যন্ত ১ হাজার ১৩৩ জন মানুষ মরণঘাতী এই ভাইরাসটিতে আক্রান্ত হয়েছে। মারা গেছে ৯ জন।

জানা যায়, ২০০৮ সালে পাবলিক প্লেসে সিগারেট পান করায় নিষেধাজ্ঞা জারি করে জর্ডান সরকার। কিন্তু পরবর্তীতে দেশটির নাগরিকদের মধ্যে ইলেকট্রিক সিগারেট ও সীসা জনপ্রিয় হয়ে ওঠে। বিভিন্ন রেস্টুরেন্টে মানুষ দল বেঁধে সীসা সেবন করতে শুরু করে। এ সংক্রান্ত কোনো নিষেধাজ্ঞা না থাকায় পাবলিক প্লেসে ইলেকট্রিক সিগারেট ও সীসার ব্যবহার বেড়ে যায়।

দ্য নিউ আরব বলছে, নতুন এই আইন শুধু পাবলিক প্লেসের ক্ষেত্রে প্রযোজ্য। তবে মানুষ তার বাড়িঘরে ধূমপান করতে পারবে।

sheikh mujib 2020