advertisement
আপনি দেখছেন

সংযুক্ত আরব আমিরাতের সবচেয়ে জনপ্রিয় ও বিখ্যাত পর্যটনকেন্দ্র দুবাই অন্যান্য দেশের পর্যটকদের জন্য খুলে দেয়া হয়েছে। তারই ধারাবাহিকতায় দুবাই আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে (ডিএক্সবি) চালু হলো ১৩টি আন্তর্জাতিক বিমান সেবা। বৃহস্পইতিবার এক বিবৃতিতে এ তথ্য জানায় দ্য দুবাই মিডিয়া অফিস (ডিএমও)।

dubai internationla airportদুবাই আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর

আল আরাবিয়ার বরাতে জানা যায়, করোনাভাইরাসের সংক্রমণ কমায় পর্যটকদের জন্য দুবাই সীমান্ত খুলে দেয়ার সিদ্ধান্ত নেয় কর্তৃপক্ষ। সে লক্ষ্যে পর্যটকদের আনা-নেয়ার জন্য ১৩টি আন্তর্জাতিক বিমানসেবাকে তারা পুনরায় চালু করার সিদ্ধান্ত নেয়। এসব বিমান কোম্পানি পৃথিবীর বিভিন্ন দেশ থেকে পর্যটকদের ডিএক্সবিতে নিয়ে আসবে।

দীর্ঘ বিরতির পর চালু হওয়া এসব বিমান সেবাগুলো হলো: এয়ার ব্লু, এয়ার ফ্রান্স, কেবু প্যাসিফিক, ইজিপ্টএয়ার,  ইথিওপিয়ান এয়ার, গালফ এয়ার, কেএলএম, লুফথানসা, মাহান এয়ার, মিডেল ইস্ট এয়ার লাইন্স, পাকিস্তান ইন্টারন্যাশনাল এয়ার লাইন্স, ফিলিপিন এয়ারলাইন্স এবং রয়াল জর্ডানিয়ান।

ডিএমও বিবৃতিতে জানায়, আরো কিছু বিমানসেবা এই অনুমোদনের অপেক্ষায় আছে। দুবাইভিত্তিক বিমানসেবা এমিরেটস ও ফ্লাই দুবাই ইতোমধ্যে তাদের সূচি প্রস্তুত করছে।

dubai internationla airport01দুবাই আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর

জানা যায়, গত ২১ জুন দুবাই কর্তৃপক্ষ নাগরিকদের অন্যান্য দেশে ঘুরতে যাওয়ার অনুমতি দেয়। এক ঘোষণায় বলা হয়, যদি কেউ পর্যটনের জন্য অন্য রাষ্ট্রে যেতে চায় তাহলে যেতে পারে। সেখানে গিয়ে আক্রান্ত হলে দুবাই কর্তৃপক্ষ দায়ী থাকবে না।

ওই বিবৃতিতে আরো বলা হয়, ৭ জুলাই থেকে অন্যান্য দেশের পর্যটকদের জন্য খুলে যাচ্ছে দুবাই। তবে তাদের বেশকিছু বিধিমালা মেনেই দুবাইতে আসতে হবে।

এই সম্পর্কিত একটি নির্দেশনাও জারি করে দুবাই বিমান কর্তৃপক্ষ। এতে বলা হয়, সব পর্যটককে এমিরেটস এয়ারলাইন্সের ওয়েবসাইটে ভিসার জন্য আবেদন করতে হবে। করোনাভাইরাসের ইন্স্যুরেন্স রাখতে হবে সবাইকে। কেউ দুবাই আসার পর করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হলে সব খরচ তাকেই বহন করতে হবে এই শর্ত সাপেক্ষে দুবাই আসা যাবে। আক্রান্ত হলে দুবাই স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের নীতিমালা অনুযায়ী কাজ করতে হবে।

সবাইকে বাধ্যতামূলক পিসিআর টেস্ট (করোনা শনাক্তকরণ) করাতে হবে এবং ফ্লাইটে উঠার ৯৬ ঘণ্টা আগেই এই টেস্ট করাতে হবে। যাত্রীদের অবশ্যই করোনা নেগেটিভ সনদ সঙ্গে রাখতে হবে।

যদি ফ্লাইটে উঠার আগে পিসিআর টেস্ট করানো সম্ভব না হয় তাহলে দুবাই বিমানবন্দরে তারা এই টেস্ট করানোর সুযোগ পাবেন। সেক্ষেত্রে ফলাফল প্রাপ্তি পর্যন্ত যাত্রীদের আইসোলেশনে অবস্থান করতে হবে।

sheikh mujib 2020