advertisement
আপনি দেখছেন

করোনাভাইরাসের উৎপত্তিস্থল চীনে ফের বাড়তে শুরু করেছে সংক্রমণ। এপ্রিলের পর আজ সোমবার দেশটিতে সর্বোচ্চ সংখ্যক রোগী শনাক্ত করা হয়েছে। এতে দেশটিতে নতুন করে ভাইরাসটির সংক্রমণ ছড়িয়ে পড়ার আশঙ্কা দেখা দিয়েছে।

china records new spikeএপ্রিলের পর চীনে সর্বোচ্চ সংক্রমণ

আল আরাবিয়ার বরাতে জানা যায়, সোমবারের হিসাব অনুযায়ী বিগত ২৪ ঘণ্টায় চীনে ৬১ জনের দেহে করোনাভাইরাসের অস্তিত্ব পাওয়া গেছে। এদের মধ্যে অধিকাংশই দেশটির উত্তর-পূর্বাংশের শিনজিয়াং প্রদেশের মানুষ। সোমবার এই প্রদেশটিতে সর্বমোট ৫৭ জন শনাক্ত করা সম্ভব হয়েছে। জুলাই মাসের মাঝামাঝি সময় থেকে প্রদেশটির রাজধানী উরুমকিতে ভাইরাসটির সংক্রমণ বেড়ে গেছে।

এছাড়া পাশের প্রদেশ উত্তর কোরিয়ার সীমান্তবর্তী জিলিন প্রদেশে নতুন করে ২ জনের দেহে প্রাণঘাতী এই ভাইরাসটির উপস্থিতি পাওয়া গেছে। মে মাসের পর এই প্রথম প্রদেশটিতে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত কোনো রোগীর সন্ধান মিলেছে। এতে আশঙ্কায় পড়েছে স্থানীয়রা।

pandemic symbolic picture10করোনাভাইরাসের মাইক্রোস্কোপিক ছবি

চীনা স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় বলছে, যেসব রোগী শনাক্ত হয়েছে তাদের সবাই অন্যদেশ থেকে এখানে এসেছে। স্থানীয়দের দুই একজন তাদের মাধ্যমেই ভাইরাসটিতে আক্রান্ত হয়েছে।

এদিকে, গত ১৪ এপ্রিল চীনে ৮৯ জনের দেহে করোনাভাইরাসের অস্তিত্ব পাওয়া যায়। এরপর ধীরে ধীরে দেশটিতে ভাইরাসের সংক্রমণ কমে আসতে শুরু করে। তার পর থেকে সোমবারের হিসাবেই একদিনে সর্বোচ্চ রোগী শনাক্ত হলো।

চীনা স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় বলছে, নতুনভাবে ছড়িয়ে পড়া সংক্রমণ রোধে তারা উরুমকিতে গণহারে টেস্ট করা শুরু করেছে। এখন পর্যন্ত শহরের ৩৫ লাখ মানুষের মধ্যে ২৩ লাখ মানুষের টেস্ট করাতে সক্ষম হয়েছে তারা।

sheikh mujib 2020