advertisement
আপনি দেখছেন

করোনাভাইরাসের কারণে মদের দোকান বন্ধ থাকায় বিকল্প হিসেবে স্যানিটাইজার পান করে কমপক্ষে ১০ জনের প্রাণহানি ঘটেছে। ভারতের অন্ধ্রপ্রদেশের প্রকাসাম জেলার একটি গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। আজ শুক্রবার স্থানীয় পুলিশের বরাত দিয়ে এনডিটিভির খবরে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

hand sanitaizer newমদ না পেয়ে স্যানিটাইজার পান

এ বিষয়ে প্রকাসাম জেলা পুলিশ সুপার সিদ্ধার্থ কুশল বলেন, লকডাউন থাকায় অন্ধ্রপ্রদেশে মদের দোকান বন্ধ রয়েছে। তাই মদের বিকল্প হিসেবে কুড়িচেদু গ্রামের বাসিন্দাদের মধ্যে কয়েকজন গত কয়েকদিন ধরে স্যানিটাইজারের সঙ্গে পানি এবং কোমল পানীয় মিশিয়ে পান করে আসছিলেন। গতকাল বৃহস্পতিবার রাতে তাদের মধ্যে তিন জনের মৃত্যু হয়। বাকি ৭ জন আজ সকালের দিকে মারা গেছেন।

এনডিটিভির খবরে বলা হয়, মৃত ব্যক্তিরা সবাই মাদকাসক্ত ছিলেন। লকডাউনের কারণে তারা মদ জোগার করতে না পেরে অ্যালকোহলযুক্ত স্যানিটাইজার পান করেন। তাদের মধ্যে তিনজন ভিক্ষুক এবং বাকিরা রিকশা চালক ও কুলি।

hand sanitaizer new1প্রতিকী ছবি

বৃহস্পতিবার রাতে কুড়িচেদু গ্রামের একটি মন্দিরের কাছে প্রথমে দুই জন ভিক্ষুক মৃত্যুবরণ করেন। স্যানিটাইজার পানের পর ঘটনাস্থলেই একজন মারা যান এবং অন্যজনকে কাছের সরকারি একটি হাসপাতালে নেয়া হলে সেখানে তার মৃত্যু হয়। ওই রাতেই হাসপাতালে তৃতীয় ব্যক্তিকে নেয়া হলে তিনিও মারা যান। যদিও চিকিৎসকরা বলছেন, তাকে মৃত অবস্থায়ই হাসপাতালে নিয়ে আসা হয়েছে।

পুলিশ বলছে, স্যানিটাইজার পানে অসুস্থ আরো কয়েকজন বর্তমানে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আছেন এবং তারা শঙ্কামুক্ত।

স্যানিটাইজারে অন্য কোনো বিষাক্ত উপাদান ছিল কি না, তা তদন্ত করে দেখা হচ্ছে জানিয়ে পুলিশ সুপার বলেন, ইতোমধ্যে সংগৃহীত নমুনা রাসায়নিক পরীক্ষার জন্য ল্যাবে পাঠানো হয়েছে।

sheikh mujib 2020