advertisement
আপনি দেখছেন

শান্তিতে নোবেল প্রাপ্ত মিয়ানমারের নেতা অন সাং সু চি দ্বিতীয়বারের মতো দেশটির নির্বাচনে অংশ নেয়ার ঘোষণা দিয়েছেন। আগামী নভেম্বরে হতে যাওয়া নির্বাচনে প্রার্থী হওয়ার ইচ্ছা প্রকাশ করেছেন তিনি। আজ মঙ্গলবার তিনি মনোয়নপত্রও দাখিল করেছেন।

aung san suu kyi 02অন সাং সু চি

আরব নিউজের বরাতে জানা যায়, প্রায় ৫০ জন সমর্থক নিয়ে মিয়ানমারের সাবেক রাজধানী ইয়াংগুনে মনোনয়নপত্র দাখিল করেছেন এই নোবেল বিজয়ী। রোহিঙ্গা ইস্যুতে আন্তর্জাতিকভাবে তার জনপ্রিয়তা হ্রাস পেলেও স্থানীয়দের মধ্যে তিনি এখনো বেশ প্রভাবশালী ও জনপ্রিয়।

মনোয়নপত্র দাখিলের সময় তার সমর্থকরা লাল রঙের মাস্ক পড়া ছিলো। এর মাধ্যমে তারা বোঝাতে চেয়েছে যে, আগামীতেও ক্ষমতায় আসছে লীগ অব ডেমোক্রেসি (এনএলডি)। তারা সবাই স্লোগান দিচ্ছিল, ‘মা সু, সুস্থ থাকো’।

rohingya camp in bangladeshকক্সবাজারের রোহিঙ্গা ক্যাম্প

করোনাভাইরাসের এই মহামারির মধ্যেই গত ১ জুলাই মিয়ানমার সরকার ঘোষণা করে যে, আগামী নভেম্বরে তাদের জাতীয় নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে।

মিয়ানমারে গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠার জন্য সুদীর্ঘ লড়াই করেছেন সু চি। এর জন্য তাকে নোবেলও দেয়া হয়েছে। ২০১৫ সালের নির্বাচনে বিজয়ী হয়ে দেশটির ক্ষমতায় আসেন তিনি। কিন্তু দীর্ঘ বছর সামরিক শাসনের অধীনে থাকা দেশটিতে বেসামরিক প্রতিনিধি হিসেবে ক্ষমতায় গেলেও সেনাবাহিনীর নিয়ন্ত্রণ থেকে বেরুতে পারেননি তিনি।

ফলে ক্ষমতায় যাওয়ার অল্প সময়ের মধ্যে আন্তর্জাতিক ক্ষেত্রে জনপ্রিয়তা হারাতে থাকেন তিনি। বিশেষ করে, ২০১৭ সালের রোহিঙ্গা গণহত্যা ও উচ্ছেদের কারণে সমালোচনার মুখে পড়তে হয়েছে তাকে। সেনাবাহিনীর প্রভাবের কারণে কোনো ব্যবস্থাও নিতে পারেননি তিনি। উল্টো রোহিঙ্গা নিধনের পক্ষেই সাফাই গেয়েছেন। এর ফলে তাকে দেওয়া আন্তর্জাতিক অনেক সম্মাননাও প্রত্যাহার করা হয়েছে।

sheikh mujib 2020