advertisement
আপনি দেখছেন

লেবাননের রাজধানী বৈরুতে রাসায়নিক গুদাম থেকে ভয়াবহ বিস্ফোরণের ঘটনায় আহত নেদারল্যান্ডসের রাষ্ট্রদূতের স্ত্রী হেডউইগ ওয়াল্টম্যান্স-মলিয়ের মারা গেছেন। আজ শনিবার স্থানীয় একটি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন।

beirut explosion 7গত মঙ্গলবার ভয়াবহ বিস্ফোরণ ঘটে বৈরুতে

বার্তা সংস্থা রয়টার্স জানায়, ডাচ পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের এক বিবৃতিতে হেডউইগ ওয়াল্টম্যান্স-মলিয়ের মৃত্যুর খবর জানানো হয়। তিনি লেবাননে নিযুক্ত ডাচ রাষ্ট্রদূত জ্যান ওয়াল্টম্যান্সের স্ত্রী। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিলো ৫৫ বছর।

খবরে বলা হয়, বৈরুতে বিস্ফোরণের দিন স্বামীর সঙ্গে ঘটনাস্থলের কাছে নিজ বাসভবনে অবস্থান করছিলেন হেডউইগ ওয়াল্টম্যান্স-মলিয়ের। বিস্ফোরণে ডাচ দূতাবাসে মোট ছয়জন কমকর্তা আহত হয়েছিলেন। এর মধ্যে হেডউইগ ওয়াল্টম্যান্স-মলিয়ের অবস্থা গুরুতর ছিলো। পরে চারদিন মৃত্যুর সঙ্গে লড়াই করে আজ তিনি না ফেরার দেশে পাড়ি জমান। এছাড়া আহত বাকিদের প্রাথমিক চিকিৎসা শেষে ওইদিনই ছেড়ে দেওয়া হয়।

headwig waltmans moliereহেডউইগ ওয়াল্টম্যান্স-মলিয়ের- ফাইল ছবি

জ্যান ওয়াল্টম্যান্স ও হেডউইগ ওয়াল্টম্যান্স-মলিয়ের দম্পতির দুটি সন্তান রয়েছে।

গত মঙ্গলবার স্থানীয় সময় সন্ধ্যায় ভয়াবহ বিস্ফোরণে কেঁপে উঠে বৈরুত। এ ঘটনায় এখন পর্যন্ত ১৫৪ জনের মৃত্যুর খবর পাওয়া গেছে। যার মধ্যে ৪ জন বাংলাদেশি প্রবাসী রয়েছেন। এছাড়া আহত হয়েছেন ৫ হাজারের বেশি মানুষ।

sheikh mujib 2020