advertisement
আপনি দেখছেন

অবশেষে তালেবান বন্দীদের মুক্তি দিতে সম্মতি জানালেন আফগান প্রেসিডেন্ট আশরাফ ঘানি। রোববার দেশটির গ্র্যান্ড অ্যাসেম্বলিতে ‘লোয়া জিগরা’ -তে একটি প্রস্তাবনা পাশ হওয়ার পর তাতে রাজি হন ঘানি। সিদ্ধান্ত মোতাবেক ৪০০ তালেবান সদস্য মুক্তি পাবে ।

ashraf ghani 023তালেবান বন্দীদের মুক্তিতে রাজি হলেন আফগান প্রেসিডেন্ট

আল জাজিরার বরাতে জানায়, লোয়া জিগরা হলো আফগানিদের ঐতিহ্যগত একটি সম্মেলন। সেখানে সমাজের অধিকর্তাদের মাধ্যমে গুরুত্বপূর্ণ ইস্যুতে সিদ্ধান্ত নেয়া হয়। পরে সরকার তার বাস্তবায়ন করে।

তালেবান সদস্যদের মুক্তির প্রসঙ্গে লোয়া জিগরার সদস্য আতিফা তৈয়্যব এক ঘোষণায় বলেন, রক্তপাত বন্ধে, শান্তি প্রতিষ্ঠায় এবং জনগণের ভালোর জন্য লোয়া জিগরা ৪০০ তালেবান সদস্যকে বন্দী দশা থেকে মুক্ত করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

afgan loya jirgaআফগান গ্র্যান্ড অ্যাসেম্বলি ‘লোয়া জিগরা’

এই ঘোষণার পরেই ঘানি বলেন, আজই আমি ৪০০ বন্দির মুক্তি সনদে সই করবো।

আল জাজিরা বলছে, আফগান সরকারের সঙ্গে তালেবানদের শান্তি আলোচনা এই বন্দী মুক্তি ইস্যুর কারণেই বার বার ব্যাহত হচ্ছিল। দেশটির সরকার তালিকা অনুযায়ী শেষ ৪০০ জনকে মুক্তি দিতে গড়িমসি করছিল। এর জেরে দুই পক্ষের শান্তি আলোচনা কয়েকদফায় পণ্ড হয়।

জানা যায়, যে ৪০০ জনকে মুক্তি দেয়া হচ্ছে তাদের অধিকাংশের বিরুদ্ধে হত্যা ও সহিংসতার প্রমাণ আছে। এদের মধ্যে ১৫০ জনকে মৃত্যুদণ্ডের আদেশ দিয়েছে আফগান আদালত। তাছাড়া এদের মধ্যে এমন ৪৪ জনের নাম আছে যারা মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র ও অন্যান্য কিছু দেশের বিরুদ্ধে বড় বড় হামলার পেছনে কাজ করেছে।

রোববার তাদের মুক্তি বিষয়ক সিদ্ধান্ত নেয়ার আগে লোয়া জিগরা কমিটি আন্তর্জাতিক অঙ্গীকার চেয়েছে যে, তারা তালেবানকে আর যুদ্ধের ময়দানে দেখতে চায় না।

আফগান সরকারের অন্যতম নীতিনির্ধারক মুশতাক রহিম এ প্রসঙ্গে বলেন, লোয়া জিগরা তালেবান সদস্যদের মুক্তি দেয়ার যে সিদ্ধান্ত নিয়েছে তা আফগান সরকার ও তালেবানদের শান্তি আলোচনাকে ত্বরান্বিত করবে।

sheikh mujib 2020